লেখক পরিচিতি

সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়

প্রকাশ : ১৭ জুন ২০১৭, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় ১৯৩৪ সালের ৭ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের মাদারীপুর জেলার মাইঝপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা কালীপদ গঙ্গোপাধ্যায় ছিলেন একজন স্কুলশিক্ষক, মাতা মীরা গঙ্গোপাধ্যায়। মাত্র চার বছর বয়সে তিনি কলকাতায় চলে আসেন। তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৫৩ সালে ‘কৃত্তিবাস’ নামক কবিতা পত্রিকা প্রকাশের মাধ্যমে তিনি তরুণ প্রজন্মের কবিদের দৃষ্টি কাড়েন।

তিনি একাধারে ছিলেন কবি, ঔপন্যাসিক, ছোটগল্পকার, সাংবাদিক ও নিবন্ধকার। তবে পেশাগত দিক থেকে তিনি ছিলেন সাংবাদিক। তিনি আধুনিক বাংলা কবিতার জীবননান্দ-পরবর্তী পর্যায়ের অন্যতম প্রধান কবি। একই সঙ্গে তিনি আধুনিক ও রোমান্টিক কবি। কবিতা ও কথাসাহিত্যে যে ভুবন তিনি রচনা করেছেন সেখানে ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতি ও মানবীয় প্রেমের এক অসামান্য জগৎ তৈরি হয়েছে। তিনি ‘নীললোহিত’, ‘সনাতন পাঠক’ ও ‘নীল উপাধ্যায়’ প্রভৃতি ছদ্মনামে লিখেছেন। সবমিলিয়ে তিনি দুইশ’র বেশি গ্রন্থ রচনা করেছেন। সাহিত্যকর্মের স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি ভারতে সাহিত্য একাডেমি পুরস্কার, বঙ্কিম পুরস্কার, আনন্দ পুরস্কারসহ বিভিন্ন সম্মাননায় ভূষিত হন। সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় ২০১২ সালের ২৩ অক্টোবর কলকাতায় নিজ বাড়িতে মৃত্যুবরণ করেন।

তার উল্লেখযোগ্য রচনাসমূহ : কাব্যগ্রন্থ- এক এবং কয়েকজন, আমার স্বপ্ন, জাগরণ হেমবর্ণ, দাঁড়াও সুন্দর, মন ভালো নেই, স্বর্গনগরীর চাবি, স্মৃতির শহর, হঠাৎ নারীর জন্য।

উপন্যাস: অরণ্যের দিনরাত্রি, আত্মপ্রকাশ, প্রতিদ্বন্দ্বী, সেই সময়, পূর্ব-পশ্চিম, প্রথম আলো।

"