বড়দিনের সাজ

প্রকাশ : ২১ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

জীবনযাপন ডেস্ক

খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব বড়দিন। আগামী ২৫ ডিসেম্বর সারা বিশ্বের মতো আমাদের দেশেও পালন করা হবে বড়দিন। এই দিনের অন্যতম আকর্ষণ হলো সান্তা ক্লোজ ও ক্রিসমাস ট্রি। এ ছাড়া বাড়িতে বাড়িতে বড়দিনের কেক ও মুখরোচক খাবার তো থাকবেই। নিয়ম অনুযায়ী বাংলাদেশের খ্রিস্ট ধর্মানুসারীরাও আনন্দ-উৎসব ও প্রার্থনার মধ্য দিয়ে দিনটি উদযাপন করবেন। দিনে এবং রাতে চলবে নানা ধরনের পার্টি। এই বিশেষ সময়গুলোতে নিজেকে সবাই চাইবে একটু আলাদাভাবে তৈরি করার জন্য। বড়দিনে কয়েকদিন আগে থেকেই চলে কেনাকাটা। মেয়েরা শাড়িই বেশি পছন্দ করে এ দিনটির জন্য। তার সঙ্গে গলায় লম্বা মালা পরা হয়। কানে দুল আর হাতে চুড়ি। কাজল না দিলে কখনোই সাজ পূর্ণতা পায় না। তাই চোখে মোটা করে কাজল আঁকার পাশাপাশি হালকা আইশ্যাডো আর ঠোঁটে গ্লস বা লিপস্টিক তো দিতেই হয়। তবে এবার সবার পছন্দের শীর্ষে উঠে এসেছে দেশি পোশাক। অনেকেই পছন্দের পোশাক কিনতে ঝুঁকছেন দেশি ফ্যাশন হাউসগুলোতে। পছন্দের কাপড়ের পাশাপাশি পাওয়া যাচ্ছে কাছাকাছি ধরনের শালও। এ ছাড়া অনেকেই রেডিমেট কাপড়ের পাশাপাশি কিনে নিচ্ছেন গজ কাপড়। ইয়ক, ব্লক, এমব্রয়ডারি, আর লেসের সমন্বয়ে তৈরি করে নিচ্ছেন নিজের মনের মতো পোশাক। এখন যেহেতু জামার রঙে নয় বরং তার থেকে ভিন্ন রঙের ব্যাগ আর জুতা ব্যবহারের ফ্যাশন চলছে, তাই বেছে নিতে পারেন পোশাকের একদম বিপরীত রঙের ব্যাগ। এ ক্ষেত্রে কাপড়ের ব্যাগ ব্যবহারে আপনার ফ্যাশন হবে অনন্য। আর জুতা কেনার সময় ফ্যাশন না বরং মনোযোগ দিন স্বাচ্ছন্দ্যবোধ আর পায়ের ধরনের ওপর। পা ভারী হলে হালকা কাজের জুতা ব্যবহার করুন। দুই ফিতার জুতায় হালকা কাজের জুতা আনার পা-টিকে যেমন হালকা গড়নের দেখাবে তেমন হালকা গড়নের পায়ে ভারী বা চওড়া জুতা পরলে ভালো দেখাবে। দেশি ফ্যাশন হাউসগুলোর মধ্যে দেশি দশ ঘুরে দেখতে পারেন। এ ছাড়া উত্তরা, গুলশান, বনানী, বেইলি রোড, মিরপুর, ধানমন্ডি নানা জায়গায় ফ্যাশন হাউস পাবেন। গজ কাপড় কিনতে পারেন নিউমার্কেট, গাউছিয়া, ধানম-ি ও বিভিন্ন বিপণিবিতানে।

"