নির্মল আনন্দের পোশাক পাঞ্জাবি

প্রকাশ : ২৭ এপ্রিল ২০১৮, ০০:০০

জীবনযাপন ডেস্ক

ধর্মীয়, সাংস্কৃতিক কিংবা বা বিয়ের অনুষ্ঠানে বাঙালি পোশাকের অন্যতম অনুষঙ্গ পাঞ্জাবি। গরমেও অনেকের পছন্দ পাঞ্জাবি। কেননা একাধারে স্বাচ্ছন্দ্য এবং ট্রেন্ড দুটোই বহাল থাকে এই পোশাকে। আর তাই গরমকে সামনে রেখে বিভিন্ন ফ্যাশন হাউসও সেজে ওঠে নতুন ডিজাইনের সব পাঞ্জাবির সাজে। ভিন্ন ভিন্ন ডিজাইনের পাঞ্জাবির কোয়ালিটি ভেদে দেখা যায় বিভিন্ন দামদরও।

সাধারণত ফরমাল, স্লিম আর শর্টÑএই তিন ধরনের পাঞ্জাবিই বেশি দেখা যায় বাজারে। আর এই তিনটির বাইরে রয়েছে এক্সিকিউটিভ পাঞ্জাবি, যেটা শর্ট পাঞ্জাবিরই একটু আপডেট ভার্সন বলা যায়। এ ধরনের পাঞ্জাবি, শর্ট পাঞ্জাবি থেকে লম্বায় একটু বড় হয়, কিন্তু ফরমালের মতো বেশি নয়। গরমে সাধারণত বেশির ভাগ মানুষই একটু হালকা রঙের দিকে ঝোঁকে অথবা কেউ বেছে নেয় সাদা। তাই পাঞ্জাবির মূল নতুনত্ব দেখা যায় এর বেসিক ডিজাইনে। প্রিন্টের মধ্যেই দেখা যায় চোখ ধাঁধানো আর জমকালো ডিজাইন। প্রিন্টের ডিজাইনগুলো ফোকাসিংয়ের মূল জায়গা দখল করে রয়েছে কিছু কলার আর বোতামের নতুনত্ব নিয়ে। প্রিন্ট বাদে অন্যান্য কাজ তো থাকবেই।

সব সময়ের মতো গরমের পাঞ্জাবিতে এবারও দেখা যাচ্ছে দারুণ নকশার স্ক্রিন প্রিন্টেড পাঞ্জাবি। পাখি, পাতা লেখাসহ বিভিন্ন ডিজাইনের স্ক্রিন প্রিন্টের সঙ্গে রয়েছে অসাধারণ কিছু জিওমেট্রিক প্রিন্টও। দেখা যায়, আদিম সংস্কৃতি আর সভ্যতা নিয়ে কিছু ছিমছাম ধাঁচের প্রিন্ট। এ ছাড়াও দেশীয় ফ্যাশন হাউসগুলোয়ও পাওয়া যাবে বিভিন্ন ডিজাইনের স্ক্রিন প্রিন্টেড কালেকশন। এসব পাঞ্জাবির প্রায় সব ডিজাইনই দেখা যাবে কটন ফেব্রিকের মধ্যে। যেগুলোর দাম পড়বে ৭০০ থেকে ৩০০০ টাকার মতো।

একটা সুন্দর ডিজাইনের স্ক্রিন প্রিন্ট যেমন বদলে দেয় সম্পূর্ণ কাপড়ের চেহারা, তেমনি ব্লক প্রিন্টেও ফুটে ওঠে দারুণ সব ডিজাইন। ব্লক প্রিন্টেও দেখা মেলে স্ক্রিন প্রিন্টের মতো অসাধারণ কাজের। এগুলোর বেশির ভাগই জিওমেট্রিক ডিজাইনের হয়ে থাকে। কিন্তু কিছু জায়গায় দেখা যাবে ভিন্নতাও। ব্লক প্রিন্টে ফুটে উঠবে ময়ূর, ফুলেল নকশা। যে কোনো সময়ের ফ্যাশন লুকে যা রাখবে অসামান্য ভূমিকা। ব্লক প্রিন্টেড পাঞ্জাবি দেখা যাবে বেশির ভাগ ফ্যাশন হাউসেই। আর কিছু শোরুমে ব্লকের পাঞ্জাবি পাবেন ফ্যামিলি প্যাকেজেও। দরদাম পড়বে ৭০০ থেকে ৩০০০ টাকা।

স্ক্রিন প্রিন্ট বা ব্লক প্রিন্টই হোক গ্রীষ্মের ডিজাইনে দেখা যাবে প্রিন্টের সঙ্গে অন্য কাজের কম্বিনেশন। কিছু স্ক্রিন প্রিন্টে থাকবে অসাধারণ হাতের কাজ আর এমব্রয়ডারির নকশা। কারচুপির মধ্যেও পাওয়া যাবে প্রিন্টেড ডিজাইন। কিছু ফ্যাশন হাউসে সিল্ক আর এন্ডি সিল্কের ওপরে পাবেন এমন ডিজাইন। পেতে পারেন সুতিতেও এ রকম কিছু কাজ। তবে সিল্কেরগুলোই হবে বেশি জমকালো। দাম পড়তে পারে ১০০০ থেকে ৪০০০ টাকা।

কেউ প্রিন্টেড ছাড়া নিতে চাইলেও পাবেন কিছু স্পেশাল ডিজাইন। বরাবরের মতো একদমই কোনো কাজ ছাড়া পাবেন কুর্তা টাইপের কিছু পাঞ্জাবি। কুর্তাগুলো সাধারণত সুতি কাপড়ের আর লম্বায় একটু শর্ট হয়ে থাকে। আড়ং, দেশালসহ দেশীদশের কয়েকটা শোরুমে পাবেন কুর্তা। আছে যাত্রা, স্বদেশিতেও। এগুলোর ডিজাইন মূলত কলার, রং আর বোতামের ওপর বেশি হেরফের হয়ে থাকে। পরতে আরামদায়ক কুর্তাগুলো খুব একটা জমকালো না হলেও দামদর পড়বে বেশ কমই। বিভিন্ন জায়গায় এগুলোর দাম পড়বে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে।

রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোডসংলগ্ন প্রিয়াঙ্গন মার্কেট মানেই পাঞ্জাবির হাট। প্রিন্টেড পাঞ্জাবি অনেকটা কম থাকলেও সেখানে দেখা মেলে প্রচুর এমব্রয়ডারি আর লেইসের কাজ। লেইসে সাজানো ঝকঝকা পাঞ্জাবি নিতে চাইলে এই মার্কেটে পাবেন হরেক রকম। ৪০০ থেকে ১২০০ টাকার মধ্যে। এ ছাড়া রাজধানীর উত্তরা, নিউমার্কেট, পুরান ঢাকা, এলিফ্যান্ট রোডের মতো লোকাল মার্কেটগুলোয় প্রায় একই রকম দামে পাওয়া যাবে বিভিন্ন মানের পাঞ্জাবি।

"