করোনাভাইরাস

যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু লাখ ছাড়াল

প্রকাশ : ২৯ মে ২০২০, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রে চার মাসেরও কম সময়ের মধ্যে নতুন করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবে মৃত্যুর সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়ে গেছে। করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবে আক্রান্ত অন্য যে কোনো দেশের চেয়ে যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যুর সংখ্যা বেশি। দেশটিতে শনাক্ত হওয়া আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ১৭ লাখ, যা বিশ্বের মোট সংক্রমণের প্রায় ৩০ শতাংশ। ২১ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন রাজ্যে প্রথম সংক্রমণের কথা জানা যায়।

গত বছরের শেষ দিকে চীনের উহান শহরে ভাইরাসটি আবির্ভূত হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী প্রায় ৫৭ লাখ লোক আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছে আর মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৫৫ হাজার ৬২৯ জনের। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশের স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সকাল নাগাদ যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যুর সংখ্যা ১ লাখ ৪৪২ জনে দাঁড়িয়েছে।

এই সংখ্যাটি কোরিয়া, ভিয়েতনাম, ইরাক ও আফগানিস্তানে ৪৪ বছরেরও বেশি সময়ের লড়াইয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সশস্ত্রবাহিনীর যত লোক নিহত হয়েছে তার প্রায় সমান বলে জানিয়েছেন বিবিসি উত্তর আমেরিকার সম্পাদক জন সোপল। তবে মৃত্যুর হারের দিক থেকে যুক্তরাষ্ট্র বেলজিয়াম, স্পেন, যুক্তরাজ্য, ইতালি, ফ্রান্স, সুইডেন, নেদারল্যান্ডস ও আয়াল্যান্ডের পরে আছে বলে জানাচ্ছে জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাব।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী, গেল সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের ২০টি রাজ্য নতুন আক্রান্ত বৃদ্ধির কথা জানিয়েছে। যেসব রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ধারাবাহিকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে সেগুলোর মধ্যে নর্থ ক্যারোলাইনা, উইসকনসিন ও আরক্যানসও আছে।

শিকাগো, লস অ্যাঞ্জেলস ও ওয়াশিংটন ডিসির মতো মেট্রোপলিটন এলাকাগুলোতে আক্রান্তের সংখ্যা তুলনামূলকভাবে অনেক বেশি। তবে নিউ ইয়র্কসহ প্রাদুর্ভাব জর্জরিত কিছু রাজ্যে মৃত্যুর হার কমে এসেছে।

সরকার পদক্ষেপ নিতে দেরি করেছে এমন সমালোচনা থাকলেও যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দাবি করেছেন, তার প্রশাসন পদক্ষেপ না নিলে মৃত্যুর সংখ্যা ২৫ গুণ বেশি হতো। নার্সিং হোমগুলোর জন্য ভাইরাসটি কতটা প্রাণঘাতী হতে পারে যুক্তরাষ্ট্রের রাজ্যগুলোর গভর্নররা তা উপলব্ধি করতে পারেননি বলেও সমালোচনা আছে।

প্রথমদিকে ট্রাম্প মহামারিটিকে তেমন গুরুত্ব দেননি, এটিকে মৌসুমি ফ্লুর সঙ্গে তুলনা করেছিলেন। ভাইরাসটি যুক্তরাষ্ট্রের ‘নিয়ন্ত্রণে আছে’ বলে ফেব্রুয়ারিতে দাবি করেছিলেন আর এপ্রিলে ভাইরাসটি ‘দৈবক্রমে চলে যেতে পারে’ বলে মন্তব্য করেছিলেন।

প্রথমে ট্রাম্পের অনুমান ছিল, ৫০ থেকে ৬০ হাজার লোক মারা যাবে, পরে ৬০ থেকে ৭০ হাজার আর এরপর ‘এক লাখের নিচে থাকবে’ বলে মন্তব্য করেছিলেন। নিউইয়র্কের কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের করা এক সমীক্ষায় বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র আরো আগে পদক্ষেপ নিলে প্রায় ৩৬ হাজার লোকের মৃত্যু এড়ানো যেত।

 

"