হাতঘড়িতে ৩ দিন বেঁচে থাকতে পারে করোনা

প্রকাশ : ১১ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্লাস্টিক এবং কিছু স্টেইনলেস স্টিলে তিন দিন পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে করোনাভাইরাস। সাম্প্রতিক সময়ে এক নতুন গবেষণায় এ তথ্য ওঠে এসেছে। সে কারণেই এ ধরনের নিত্য ব্যবহৃত জিনিসের বিষয়ে সতর্ক করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

সংক্রামক রোগবিষয়ক এক বিশেষজ্ঞ এ বিষয়ে সতর্ক করেছেন। তিনি লোকজনকে ব্যবহৃত হাতঘড়ি ও স্মার্ট ওয়াচ পরিষ্কারের ব্যাপারে সচেতন থাকতে বলেছেন। করোনার প্রকোপ থেকে বাঁচতে এসব জিনিস প্রতিদিনই পরিষ্কার রাখতে হবে।

ফিমেইল ম্যাগাজিনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে গ্রিফিথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সংক্রামক রোগের বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক নিগেল ম্যাকমিলান এই প্রাণঘাতী ভাইরাসের সংক্রমণ কীভাবে ছড়িয়ে পড়ে সে বিষয়ে কথা বলেছেন। তার মতে, প্রতিদিন ব্যবহার করা হয় এমন সব ডিভাইসও সব সময় পরিষ্কার করতে হবে।

কারণ এসব জিনিসের মধ্যেও করোনাভাইরাস বেঁচে থাকতে পারে। তিনি ব্যাখ্যা করে বলেন, প্রতিটি অণুজীব আপনার হাতঘড়িতে বেঁচে থাকতে পারে। হোক সেটা স্মার্ট বা সাধারণ হাতঘড়ি। তিনি বলেন, যেকোনো কিছুর পৃষ্ঠেই কোভিড-১৯ বেঁচে থাকতে পারে এবং সেখান থেকে অন্যত্র ছড়িয়ে পড়ে।

তিনি বলেন, অনেকেই ব্যায়ামের সময় স্মার্ট ওয়াচ ব্যবহার করেন। এটা বর্তমানে মানুষকে অনেক ধরনের প্রযুক্তিগত সুবিধা দিয়েছে। কিন্তু এ ধরনের ঘড়িগুলো করোনার আবাসস্থলে পরিণত হতে পারে।

তিনি বলেন, লোকজন বার বার তাদের হাত পরিষ্কারের কথা মনে রাখেন তবে তারা সেভাবে তাদের স্মার্ট ওয়াচের বিষয়ে সচেতন থাকেন না। সারা দিনে বেশ কয়েকবার ঘড়ি স্পর্শ করা হয়। যদি কোনোভাবে ঘড়ির মধ্যে করোনা আশ্রয় নিতে পারে তাহলে পরিষ্কার না করা পর্যন্ত সেটা ওখানেই দিনের পর দিন বেঁচে থাকবে।

অর্থাৎ কেউ যদি অপরিষ্কার ডিভাইস হাত দিয়ে স্পর্শ করে এর মাধ্যমে তার শরীরে সংক্রামণ ঘটতে পারে।

 

"