সিরিয়া ইস্যুতে ট্রাম্পের কৌশলের কড়া সমালোচনা ম্যাককনেলের

প্রকাশ : ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মার্কিন কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠ অংশের নেতা মিচ ম্যাককনেল সিরিয়া থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তের কঠোর সমালোচনা করেছেন।

ওয়াশিংটন পোস্টে লেখা এক নিবন্ধে তিনি মার্কিন সেনা সরিয়ে নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সিরিয়ায় তুরস্কের অভিযানকে ‘কৌশলগত দুঃস্বপ্ন’ হিসেবেও আখ্যা দিয়েছেন বলে জানিয়েছে বিবিসি। এর আগে গত বুধবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তুরস্ক-সিরিয়ার এখনকার সীমান্ত পরিস্থিতিকে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য ‘কৌশলগতভাবে অসাধারণ’ বলে অভিহিত করেছিলেন।

গত বৃহস্পতিবার মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স ও তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়িপ এরদোয়ানের বৈঠকের পর আঙ্কারা পাঁচ দিনের জন্য সিরিয়া অভিযানে ‘বিরতি টানার’ ঘোষণা দেয়। তবে গত শুক্রবার সকালেও কুর্দি নিয়ন্ত্রিত শহরগুলোর কোথাও কোথাও বিচ্ছিন্ন যুদ্ধের খবর পাওয়া গেছে।

তুরস্ক তাদের এ ‘অপারেশন পিস স্প্রিং’ অভিযানের লক্ষ্য হিসেবে সিরিয়ার সীমান্ত থেকে কুর্দি গেরিলাদের তাড়িয়ে সেখানে শরণার্থীদের জন্য একটি ‘নিরাপদ অঞ্চল’ প্রতিষ্ঠার কথা জানিয়েছিল। সিরীয় গৃহযুদ্ধ শুরুর পর থেকে প্রতিবেশী তুরস্কে ৩০ লাখেরও বেশি সিরীয় আশ্রয় নিয়েছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থা।

আট দিনের এ অভিযানে এরই মধ্যে সীমান্তবর্তী প্রায় ৩ লাখ সিরিয়ান নাগরিক উদ্বাস্তু হয়ে পড়েছেন বলে যুদ্ধ পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণকারী সংস্থাগুলোর অনুমান। অভিযানের নামে তুরস্ক সিরিয়ায় কুর্দিদের ওপর ‘জাতিগত নিধনযজ্ঞে’ নেমেছে বলেও অনেকে অভিযোগ করেছেন।

৯ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া এ অভিযানে আঙ্কারা ও তার সমর্থিত বাহিনীগুলো সিরিয়ায় ক্ষতিকর সাদা ফসফরাস ব্যবহার করেছে বলে অসমর্থিত বেশ কয়েকটি সূত্রে খবর পাওয়ার কথা জানিয়েছে বিবিসি। ওয়াশিংটন পোস্টে লেখা নিবন্ধে ম্যাককনেল বলেছেন, সিরিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহার যুক্তরাষ্ট্রের জন্য ‘বড় ধরনের কৌশলগত ভুল’।

মার্কিন সেনাদের ‘পলায়ন’ ওই অঞ্চলে রাশিয়া ও ইরানের প্রভাব বৃদ্ধিতে সুযোগ করে দেবে বলেও মত তার।

কেন্টাকির এই সিনেটর তুরস্কের বিরুদ্ধে সামরিক-অর্থনৈতিক সব ধরনের চাপ সৃষ্টির মাধ্যমে দেশটিকে ‘বশে রাখা’র পাশাপাশি সিরিয়ায় ‘স্বল্প মাত্রায় মার্কিন সেনা উপস্থিতি’ এবং মধ্যপ্রাচ্যে ‘বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির হুমকি’ নিয়ে মিত্রদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার পরামর্শ দিয়েছেন। প্রভাবশালী এ রিপাবলিকান অবশ্য তার নিবন্ধের কোথাও ট্রাম্পের নাম উল্লেখ করেননি।

ম্যাককনেলের পাশাপাশি ট্রাম্প সমর্থক বলে খ্যাত রিপাবলিকান লিন্ডসে গ্রাহামও সিরিয়া পরিস্থিতি নিয়ে প্রেসিডেন্টের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে একহাত নিয়েছেন। তুরস্ক সিরিয়ায় ‘জাতিগত নিধনযজ্ঞে’ মেতেছে বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি। ট্রাম্প অবশ্য এসব সমালোচনাকে মোটেও পাত্তা দিচ্ছেন না।

সীমান্তে তাদের সমস্যা আছে। ওই সীমান্ত আমাদের নয়। সেখানে আমাদের প্রাণ বিসর্জন দেওয়াও উচিত হবে না, বলেছেন তিনি।

"