কাশ্মীরের পরিস্থিতি স্বাভাবিক নয় : রাহুল গান্ধী

প্রকাশ : ২৬ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভারত অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীরের পরিস্থিতি স্বাভাবিক নয় বলে মন্তব্য করেছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। গত শনিবার শ্রিনগর বিমানবন্দর থেকে ফিরিয়ে দেওয়ার পর তিনি এমন মন্তব্য করেন।

রাহুল গান্ধী বলেন, ‘আমরা জানতে চেয়েছিলাম, সেখানকার মানুষ কেমন আছেন। বিদ্যমান পরিস্থিতিতে জনগণকে সাহায্য করতে চেয়েছিলাম। দুর্ভাগ্যবশত আমাদের বিমানবন্দর থেকে বেরোতে দেওয়া হয়নি। আমাদের সঙ্গে থাকা সাংবাদিকদের হেনস্তা করা হয়েছে, মারধর করা হয়েছে। এটা পরিষ্কার যে, জম্মু ও কাশ্মীরের পরিস্থিতি স্বাভাবিক ছিল না।’

এই রাজনীতিক জানান, জম্মু-কাশ্মীরের থেকে বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা প্রত্যাহার এবং রাজ্যটিকে ভেঙে দুই টুকরো করে দেওয়ার পর সেখানকার ‘পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে’ এমনটা দেখাতে রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক তাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন।

এই কংগ্রেস নেতা বলেন, রাজ্যপাল বিমান পাঠানোর প্রস্তাব দিলে আমি তাকে বলি, বিমান আমার প্রয়োজন নেই। তবে আপনার প্রস্তাব গ্রহণ করছি। আমি জম্মু-কাশ্মীরে যাব।

এদিকে জম্মু-কাশ্মীরের তথ্য ও জনসংযোগ দফতরের এক টুইটে বলা হয়েছে, সীমান্ত সন্ত্রাস এবং হামলা থেকে জম্মু-কাশ্মীরের মানুষকে রক্ষা করার চেষ্টা করছে সরকার। এমন একটি সময়ে রাজনৈতিক নেতাদের শ্রিনগরে যাওয়া উচিত হবে না। কারণ তাতে সাধারণ মানুষের অসুবিধা হতে পারে। তবে জেলা

প্রশাসনকে চিঠি দিয়ে রাহুল গান্ধী এবং তার সঙ্গে থাকা ১১ নেতা জানিয়েছেন, তাদের সফর নিয়ে আশঙ্কা ভিত্তিহীন।

চিঠিতে বলা হয়েছে, আমরা দায়িত্ববান রাজনৈতিক নেতা এবং নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি। আমাদের উদ্দেশ্য শান্তিপূর্ণ ও মানবিক।

শ্রিনগর বিমানবন্দরে রাহুল গান্ধীর সঙ্গে ছিলেন কংগ্রেস, সিপিআইএম, সিপিআই, রাষ্ট্রীয় জনতা দল, ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টি, তৃণমূল কংগ্রেস এবং ডিএমকে নেতারা। প্রতিনিধি দলে ছিলেন সিপিআইএম নেতা সিতারাম ইয়েচুরি, সিপিআইয়ের ডি রাজা, ডিএমকে নেতা ত্রিরুচি শিবা, আরজেডি নেতা মনোজ ঝা এবং তৃণমূল কংগ্রেস নেতা দিনেশ ত্রিবেদি। সূত্র: এনডিটিভি।

 

"