ভারতকে আইনি, রাজনৈতিক ও কূটনৈতিক জবাব দেবে পাকিস্তান

প্রকাশ : ০৮ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

কাশী¥র ইস্যুতে ভারতকে আইনি, রাজনৈতিক ও কূটনৈতিক উপায়ে জবাব দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পাকিস্তান। কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন বাতিল করে অঞ্চলটিকে দুই টুকরো করার ভারতীয় পদক্ষেপের পর এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটি। দিল্লিকে পাল্টা জবাব দেওয়ার কৌশল ঠিক করতে ইতোমধ্যেই একটি কমিটি গঠন করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

আইনজীবী, রাজনীতিবিদ, কূটনীতিবিদ, সামরিক বাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে উচ্চপর্যায়ের এ কমিটি গঠন করা হয়েছে। এর নেতৃত্ব দেবেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেশি। কমিটির অন্য সদস্যরা হচ্ছেন অ্যাটর্নি জেনারেল, পররাষ্ট্র সচিব, আইএসআইয়ের মহাপরিচালক, ডিরেক্টর জেনারেল অব মিলিটারি অপারেশন্স, আইএসপিআরের মহাপরিচালক এবং প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত।

ভারত সরকার রাষ্ট্রপতির ডিক্রি জারি করে কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন বাতিল করে অঞ্চলটিকে দুই টুকরো করার পরপরই দিল্লির সিদ্ধান্তকে ‘অবৈধ’ হিসেবে আখ্যায়িত করে পাকিস্তান। এই সিদ্ধান্তের জবাব দিতে সম্ভাব্য সব পথ অবলম্বনেরও হুশিয়ারি দেয় ইসলামাবাদ।

৫ আগস্ট সোমবার এ ইস্যুতে আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দেয় পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এতে বলা হয়, জম্মু ও কাশ্মীরের বিরোধপূর্ণ ‘স্ট্যাটাসের’ পরিবর্তন ভারত সরকার একতরফাভাবে করতে পারে না। কারণ, ওই অঞ্চলের ‘মর্যাদা’ কী হবে তা জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাবে উল্লেখ করা আছে। ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের জনগণ এবং পাকিস্তানের কাছে এই সিদ্ধান্ত কখনো গ্রহণযোগ্য হবে না। আন্তর্জাতিক এই বিরোধে পাকিস্তান একটি অংশ যেহেতু, তাই ভারত সরকার যেসব অবৈধ পদক্ষেপ নেবে তার পাল্টা সব পদক্ষেপ নেবে ইসলামাবাদ। সূত্র : ইন্ডিয়া টুডে, এনডিটিভি।

 

 

"