ভেনিজুয়েলার বিরোধীরা অবশেষে সংলাপে সম্মত

প্রকাশ | ০৯ জুলাই ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

নরওয়ের মধ্যস্থতায় প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো সরকারের প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনায় রাজি হওয়ার কথা জানিয়েছে ভেনিজুয়েলার বিরোধীরা। নরওয়ে সরকারের এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, এই সপ্তাহেই আলোচনা শুরু হতে পারে। দেশটির স্বঘোষিত প্রেসিডেন্ট ও বিরোধীদলীয় নেতা হুয়ান গুয়াইদো বলেছেন, যেকোনো আলোচনা অবশ্যই চলমান রাজনৈতিক সংকটের টেকসই সমাধানের লক্ষ্যে হতে হবে আর তা মাদুরোর সময় ক্ষেপণের চেষ্টা হতে দেওয়া হবে না।

২০১৫ সাল থেকে খাবার ও চিকিৎসার অভাবে সৃষ্ট মানবিক সংকট থেকে বাঁচতে ৪০ লাখ নাগরিক ভেনিজুয়েলা ছাড়তে বাধ্য হয়েছে। নির্বাচনী কারচুপির অভিযোগ আর অর্থনৈতিক সংকটের বিরুদ্ধে এ বছরের শুরুতে ভেনিজুয়েলায় বিক্ষোভ শুরু হয়। বিক্ষোভের সুযোগে ২৩ জানুয়ারি নিজেকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেন বিরোধীদলীয় নেতা হুয়ান গুয়াইদো। মাদুরোর সরকারকে অবৈধ দাবি করে নিজেকে বৈধ অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করে অভ্যুত্থানের ডাক দেন তিনি। এতে সমর্থন ঘোষণা করে যুক্তরাষ্ট্র। পরে কথিত ওই অভ্যুত্থান প্রচেষ্টা নস্যাতের ঘোষণা দেন প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো।

ভেনিজুয়েলার রাজনৈতিক সংকট সমাধানে গত মে মাসে আলোচনার উদ্যোগ নেওয়া হয়। ওই সময়ে মে মাসে অসলোতে আলোচনায় সম্মত হয় গুয়াইদোর সমর্থকরা। তবে একে সময় ক্ষেপণের প্রচেষ্টা বলে অভিযোগ তোলেন গুয়াইদো।

জুনে নিজস্ব সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, আরেক দফা আলোচনার প্রস্তুতি নিচ্ছে দুই পক্ষ।

গত রোববার ভেনিজুয়েলার তথ্যমন্ত্রী নরওয়ে সরকারের বিবৃতি টুইটারে পোস্ট করে আলোচনা শুরুর কথা জানান। তবে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের কাছে কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকার করেছে ভেনিজুয়েলার তথ্য মন্ত্রণালয়।

এক বিবৃতিতে স্বঘোষিত প্রেসিডেন্ট হুয়ান গুয়াইদো বলেন, ‘ভেনিজুয়েলার জনগণ, আমাদের মিত্র এবং বিশ্বের গণতান্ত্রিক শক্তি আমাদের অবাধ ও স্বচ্ছ নির্বাচনের প্রয়োজনীয়তাকে স্বীকৃতি দিয়েছে। এই নির্বাচন আমাদের সংকট উত্তরণ ও ফলপ্রসূ ভবিষ্যৎ নির্মাণের পথ সুগম করবে’।

 

 

"