ব্রেন্টনকে আটকানোর চেষ্টা করা হয়েছিল

প্রকাশ : ১৮ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে হামলা চালিয়ে কমপক্ষে ৫০ জনকে হত্যা করা হয়। এর মধ্যে আল নুর মসজিদেই হত্যা করা হয়েছে ৪১ জনকে। মসজিদটিতে বর্বর এ হামলা চালায় ২৮ বছর বয়সি অস্ট্রেলীয় বংশোদ্ভূত ব্রেন্টন ট্যারেন্ট। হামলাকারী ভিডিও গেমের ন্যায় ঠাস ঠাস করে গুলি ছুড়তে ছুড়তে সামনের দিকে অগ্রসর হতে থাকে। বৃষ্টির মতো গুলিতে লুটিয়ে পড়েন মুসল্লিরা। মৃত্যু নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত একের পর এক গুলি ছুড়তে থাকে হামলাকারী।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হামলাকারী যখন বন্দুক নিয়ে হামলার উদ্দেশ্যে মসজিদে প্রবেশ করে তখন গুলিতে নিহত প্রথম ব্যক্তি তাকে ‘হ্যালো ব্রাদার’ বলে সম্বোধন করেছিলেন। এর জবাবে তাকে লক্ষ্য করে তিনটি গুলি ছোড়ে হামলাকারী। তবে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ক্রাইস্টচার্চের আল নুর মসজিদে যখন এলোপাতাড়ি গুলি চালাচ্ছিলেন ব্রেন্টন ট্যারান্ট, তখন প্রত্যক্ষদর্শীদের অনেকে দেখেছেন এক ব্যক্তি হামলাকারীকে জাপটে ধরে আটকানোর চেষ্টা করছেন।

 

"