সৌদি যুবরাজের সফরের বিরুদ্ধে তিউনিসিয়ায় বিক্ষোভ

প্রকাশ : ২৮ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ama ami

সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের আসন্ন তিউনিসিয়িা সফরের বিরুদ্ধে দেশটিতে বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন ও নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা বিক্ষোভে অংশ নেন। সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকান্ডের নির্দেশদাতা হিসেবে বারবার সৌদি যুবরাজের নাম উঠে আসায় তাকে নিজ দেশে দেখতে চান না তিউনিস বিক্ষোভকারীরা।

মঙ্গলবার তিউনিসিয়া সফরের কথা রয়েছে সৌদি যুবরাজের। এর আগের দিন শুক্রবার পূর্বনির্ধারিত এ সফরের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের ঘটনা ঘটল। রাজধানী তিউনিসে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভে অন্যদের সঙ্গে যোগ দেন সাংবাদিক সংগঠন, এনজিও এবং নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা। মঙ্গলবার ছাত্রসংগঠনগুলোর ডাকে আরো কয়েকটি শহরে বিক্ষোভের কথা রয়েছে।

সাংবাদিক জামাল খাশোগির নৃশংস হত্যাকান্ডের ঘটনায় সমালোচনার মুখে পড়া সৌদি যুবরাজের এ সফরের বিরুদ্ধে তিউনিস সরকারকে খোলা চিঠি পাঠিয়েছে দেশটির সাংবাদিকদের সংগঠন। চিঠিতে বলা হয়েছে, সৌদি যুবরাজের সফর এ অঞ্চল এবং পুরো দুনিয়ার শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য বিপজ্জনক। এটি স্বাধীন মত প্রকাশের প্রতি হুমকিস্বরূপ। এ সফর তিউনিস বিপ্লবের সঙ্গে সাংঘর্ষিক।

২০১৮ সালের ২ অক্টোবর ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে নৃশংস হত্যাকান্ডের শিকার হন সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগি। ওই খুনের নির্দেশদাতা হিসেবে নাম সামনে আসার পর থেকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন এমবিএস নামে পরিচিত সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। ওই হত্যাকান্ডের পর গত ২২ নভেম্বর থেকে ফের বিদেশ সফর শুরু করেন এমবিএস। আঞ্চলিক সফরের অংশ হিসেবে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইনের পর সোমবার মিসরে সফরে যান সৌদি যুবরাজ। কায়রো বিমানবন্দরে তাকে অভ্যর্থনা জানান মিসরের প্রেসিডেন্ট জেনারেল আবদেল ফাত্তাহ আল সিসি।

সম্প্রতি সৌদি প্রেস এজেন্সিতে প্রকাশিত রাজ দরবারের বিবৃতিতে বলা হয়, সৌদি যুবরাজ তার বাবা রাজা সালমানের অনুরোধে কয়েকটি ‘ভ্রাতৃত্বপূর্ণ’ আরব দেশ সফর করবেন। তবে তার সফরের তালিকায় থাকা দেশগুলোর নাম উল্লেখ করা হয়নি। তিউনিসের প্রেসিডেন্সিয়াল সূত্রকে উদ্ধৃত করে এএফপি জানিয়েছে, মঙ্গলবার তিউনিসিয়ায় যাবেন সৌদি যুবরাজ। আর্জেন্টিনায় অনুষ্ঠিতব্য জি টুয়েন্টি সম্মেলনেও তার যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে।

"