‘পরমাণু চুক্তিতে নিজের শর্ত বজায় রেখেছে ইরান’

প্রকাশ : ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বিশ্বের ছয় পরাশক্তি দেশের সঙ্গে করা পরমাণু চুক্তিতে ইরান নিজের শর্ত বজায় রেখেছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘের আণবিক শক্তি পর্যবেক্ষণ সংস্থা। বৃহস্পতিবার প্রকাশিত ত্রিমাসিক প্রতিবেদনে আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা (আইএইএ) জানায়, ইরান তাদের শর্ত অনুযায়ী সীমিত ইউরেনিয়াম তৈরি ও মজুদ রেখেছে।

২০১৫ সালে ছয় বিশ্বশক্তির সঙ্গে সাক্ষরিত পারমাণবিক চুক্তির আওতায় ২০১৬ সালে দেশটির ওপর থেকে আন্তর্জাতিক অবরোধ তুলে নেওয়া হয়। মে মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ওই চুক্তি থেকে বেরিয়ে গিয়ে অবরোধ বহালের ঘোষণা দেন। আগামী আগস্টে এই নিষেধাজ্ঞা বহাল ও পারমাণবিক চুক্তি ভেস্তে যাওয়ার আশঙ্কায় ডলারের বিপরীতে পড়তে শুরু করে ইরানের মুদ্রা রিয়ালের দাম।

আইএইএর নির্বাহী পরিষদের কাছে পেশ করা প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, ২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতায় নিজেদের দেওয়া সব প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে ইরান। দেশটি আইএইএ’র পরিদর্শকদের নিয়মিত নিজের পরমাণু স্থাপনাগুলো পরিদর্শনের অনুমতি দিচ্ছে বলেও প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

এক জ্যেষ্ঠ কূটনীতিক সাংবাদিকদের বলেন, ইউরেনিয়াম উৎপাদনের হার সীমিত। কোথাও কোনো পরিবর্তন নেই। এর আগেও ভিয়েনাভিত্তিক জাতিসংঘের এই পর্যবেক্ষণ সংস্থাটি পরমাণু চুক্তিতে ইরানের যথাযথ ভূমিকার কথা উল্লেখ করেছিলো।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার জানায়, এই প্রতিবেদন এমন সময় আসলো যখন চুক্তিতে থাকা বাকি দেশগুলো যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, জার্মানি, রাশিয়া, চীন ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন এই চুক্তি রক্ষা করতে চাইছে। বৃহস্পতিবার ফরাসি পররাষ্ট্রমম্ত্রী জন ইয়েস লো দ্রিয়ান বলেন, ইরান আলোচনা এড়াতে পারে না। এই চুক্তি বিশ্ব নিরাপত্তার জন্য অপরিহার্য।

তবে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা হুশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, এই চুক্তিতে যদি তাদের জাতীয় স্বার্থ রক্ষা না হয় তবে তারা চুক্তিতে থাকবে না না। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ অনেকটা একই কথা বলেছেন। এক টুইটবার্তায় তিনি বলেন, চুক্তি থাকাই ইরানের একমাত্র পথ নয়।

 

"