সৌদি আরবে এক মাসে বিয়ে ১০ হাজার বিচ্ছেদ ৫ হাজার

প্রকাশ : ২৯ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

সৌদি আরবে এক মাসে ১০ হাজার বিয়ে ও পাঁচ হাজার বিবাহবিচ্ছেদের ঘটনা ঘটেছে। সৌদি আরবের আইন মন্ত্রণালয়ের আরবি শাওয়াল মাসের প্রতিবেদনে এই পরিসংখ্যান তুলে ধরা হয়েছে। আল-হায়াত পত্রিকার বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে মধ্যপ্রাচ্য-বিষয়ক সংবাদমাধ্যম মিডল ইস্ট মনিটর। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সৌদি আরবে বিবাহবিচ্ছেদের হার বেড়ে যাওয়ার পেছনে অনেক কারণ রয়েছে। পরিবার বিষয়ে পরামর্শক মোহাম্মদ ধাইফুল্লাহ আল-কুরানি জানান, বিবাহবিচ্ছেদের হার বেড়ে যাওয়ার কারণগুলোর মধ্যে রয়েছে বিয়ের অবমূল্যায়ন, সত্যিকার সম্পর্ক ও দায়িত্বের প্রতি অবহেলা এবং রাতে দেরি করে স্বামীর ঘরে ফেরা।

আল-কুরানি বলেন, নারীরা যখন কথা বলতে শুরু করল, যখন-তখন বাইরে যেতে ও আসতে পারছে, ঘর, স্বামী ও পারিবারিক দায়িত্ব বাদ দিয়ে মোবাইলে বেশি সময় ব্যয় করছে; তখনই বিবাহবিচ্ছেদের ঘটনা বাড়তে শুরু করে।

এ ছাড়া দম্পতিদের ব্যক্তিগত জীবনে আত্মীয় ও আশপাশের মানুষের প্রভাব ও হস্তক্ষেপেও বাড়ছে বিচ্ছেদের ঘটনা।

তবে আল-ইমাম মুহাম্মদ ইবনে সৌদ ইউনিভার্সিটির সামাজিক বিজ্ঞান ও সমাজসেবা বিভাগের ফ্যাকাল্টি মেম্বার খালেদ আল-নাকিয়াহ সৌদি আরবে বিচ্ছেদের উচ্চহারের কথা অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, বিচ্ছেদের হার মোট বিয়ের মাত্র ২৯ থেকে ৩৫ শতাংশ। দম্পতিদের অপরিপক্বতা ও বিয়ের দায়িত্ব সম্পর্কে সচেতনতা ও তা পালনের জন্য জ্ঞানের অভাব এবং বুদ্ধিবৃত্তিক ভিন্নতার কারণে বিবাহবিচ্ছেদ ঘটছে।

বিবাহবিচ্ছেদ এড়ানোর পরামর্শ দিয়ে আল-নাকিয়াহ বলেন, যারা বিয়ে করতে যাচ্ছেন তাদের জন্য সামাজিক সচেতনতা ও বিশেষ গাইড দরকার। উভয়ের মধ্যে সমঝোতা দরকার, জোর করে বিয়ে দেওয়া উচিত না এবং দম্পতিদের জীবনে পরিবারের হস্তক্ষেপ বন্ধ করতে হবে। আমাদের এটাও ভুলে গেলে চলবে না যে, স্বামী বা স্ত্রীর একে অপরের প্রতি অবজ্ঞার কথা। বিশেষ করে সামাজিক মাধ্যম ব্যবহারের কারণে অনেক দম্পতির জীবনে সমস্যা তৈরি হচ্ছে এবং বিচ্ছেদে গড়াচ্ছে।

"