উপসাগর ও হরমুজ প্রণালির পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ দাবি ইরানের

প্রকাশ : ২৯ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

আরব উপসাগর এবং হরমুজ প্রণালির ওপর ইরানের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ আছে এবং যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনীর সেখানে কোনো স্থান নেই বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির রেভল্যুশনারি গার্ডের প্রধান জেনারেল আলিরেজা তাংসিরি। সোমবার আলিরেজার বরাত দিয়ে ইরানের সংবাদ সংস্থা তাসনিম বার্তা সংস্থা এ খবর দেয়। যুক্তরাষ্ট্রের কোনো রকম বৈরী পদক্ষেপের জবাবে তেল সরবরাহের গুরুত্বপূর্ণ রুট হরমুজ প্রণালি অনেক আগে থেকেই বন্ধ করার হুমকি দিয়ে আসছেন ইরানের কর্মকর্তারা। ইরানের সঙ্গে ছয় বিশ্বশক্তির ২০১৫ সালের পরমাণু চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্র সরে আসার পর দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা সম্প্রতি বেড়েছে।

বিশ্বের বৃহত্তম তেল উৎপাদনকারী দেশ ইরানের তেল বিক্রি বন্ধে দেশটির ওপর পুনরায় অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ইরানের তেল রফতানি শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনতে চান বলেও জানিয়েছেন কয়েকজন জ্যেষ্ঠ মার্কিন কর্মকর্তা।

যুক্তরাষ্ট্র এমন পদক্ষেপ নিলে এর জবাবে উপসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলোর তেল রফতানি বন্ধ করে দিতে সামরিক পদক্ষেপ নেওয়ার হুমকি দিয়ে যাচ্ছে ইরান। এরই মধ্যে দেশটি এমন দাবি করল। আরব উপসাগর দিয়ে তেলবাহী জাহাজ চলাচল সুরক্ষিত করতে যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধজাহাজের একটি বহরও ওই নৌপথ পাহারা দেয়। ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ডের প্রধান আলিরেজা বলেন, আরব উপসাগর ও হরমুজ প্রণালি দুয়ের ওপরই ইরানের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ আছে।

হরমুজ প্রণালিতে জাহাজ চলাচল বন্ধ করে দিলেই ?আরব উপসাগর দিয়ে তেল রফতানি সরাসরি আটকে দেওয়া যাবে। আলিরেজা বলেন, ‘আমরা নিজেরাই পারস্য উপসাগরের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সক্ষম। সেখানে যুক্তরাষ্ট্র বা এ অঞ্চলের নয় এমন অনাকাক্সিক্ষতদের উপস্থিতির কোনো প্রয়োজন নেই।’

গত মাসে ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনিও এ পরিকল্পনাকে সমর্থন দিয়ে বলেছিলেন, যদি ইরান তেল রফতানির অনুমতি না পায় তবে আরব উপসাগর দিয়ে অন্যান্য দেশকে তেল রফতানি করতে দেওয়া উচিত হবে না।

"