প্রমোদতরী থেকে সাগরে পড়ে যাওয়া নারীকে ১০ ঘণ্টা পর উদ্ধার

প্রকাশ : ২১ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

উপকূল ত্যাগ করা একটি প্রমোদতরী থেকে সাগরে পড়ে যাওয়া ৪৬ বছর বয়সী এক ব্রিটিশ নারীকে উদ্ধারের কথা জানিয়েছে ক্রোয়েশিয়ার কোস্টগার্ড। বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, শনিবার স্থানীয় সময় মধ্যরাতে তীর থেকে ৬০ মাইল দূরে আড্রিয়াটিক সাগরে পড়ে যান ওই নারী; এর ১০ ঘণ্টা পর তাকে উদ্ধার করা হয় বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো নারীটির নাম কে লংস্টাফ বলে জানিয়েছে। উদ্ধারের পর তাকে নিকটবর্তী পুলা শহরের হাসপাতালে নেওয়া হয়। ‘ভাগ্যবান বলেই বেঁচে আছি। ১০ ঘণ্টার মতো পানিতে ছিলাম, তারপর এই চমৎকার মানুষগুলো আমাকে উদ্ধার করেছে,’ ক্রোয়েশীয় কোস্টগার্ডের পেট্রোলবোট ক্যাভটাট থেকে নামার পর দেশটির সংবাদমাধ্যম এইচআরটি-কে বলেন এ ব্রিটিশ নারী। জাহাজের পেছনের দিক থেকে পড়ে গিয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন তিনি। এরপরই তাকে অ্যাম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। উদ্ধারকারী নৌযানের ক্যাপ্টেন লভরো ওরেস্কোভিচ জানান, রোববার সকালে উদ্ধারের সময় লংস্টাফ ‘অত্যন্ত অবসন্ন’ ছিলেন।

‘একজন মানুষের জীবন বাঁচাতে পেরে খুবই খুশি আমরা,’ বলেছেন ওরেস্কোভিচ। যে প্রমোদতরী থেকে ওই নারী পড়ে গিয়েছিলেন, সেটির পরিচালনাকারী নরওয়েজীয় কোম্পানিও শনিবার রাতে জাহাজ থেকে পড়ে এক অতিথির নিখোঁজ হওয়ার কথা জানিয়েছিল।

ক্রোয়েশিয়ার ভারগেরোলা থেকে ইতালির ভেনিস যাওয়ার পথে ওই অতিথি নিখোঁজ হন বলে জানিয়েছিল তারা। পরে আরেক বিবৃতিতে লংস্টাফের উদ্ধারের খবরও নিশ্চিত করে তারা।

অতিথিকে জীবিত পাওয়া গেছে। তার শারীরিক অবস্থা এখন স্থিতিশীল, আরো চিকিৎসার প্রয়োজনে তাকে ক্রোয়েশিয়ার তীরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

যুক্তরাজ্যের ওই নাগরিক নিরাপদ আছেন জেনে আমরা খুবই খুশি। দ্রুতই তিনি পরিবার ও বন্ধুবান্ধবের সঙ্গে মিলিত হবেন বলে প্রত্যাশা করছি আমরা, বলেছে নরওয়ের ওই প্রমোদতরীর পরিচালনাকারী কর্তৃপক্ষ।

জাহাজ থেকে ব্রিটিশ নারীর সাগরে পড়ে যাওয়া এবং ১০ ঘণ্টা পর উদ্ধারের বিষয়টি অবগত থাকার কথা নিশ্চিত করেছে ক্রোয়েশিয়ার পররাষ্ট্র দফতর।

"