নির্বাচনে লড়াইয়ের ঘোষণা মোশাররফের

প্রকাশ : ১১ জুন ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

পাকিস্তানের সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির সাবেক স্বৈরশাসক পারভেজ মোশাররফ। আগামী ২৫ জুলাই দেশটির জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে মোশাররফ অংশগ্রহণ করবেন বলে শনিবার তার রাজনৈতিক দল অল পাকিস্তান মুসলিম লীগের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট শর্তসাপেক্ষে দুবাই থেকে মোশাররফকে দেশে ফেরার অনুমতি দেওয়ার পর নির্বাচনে লড়াইয়ের ঘোষণা দিয়েছে তার রাজনৈতিক দল। ফৌজদারি অপরাধের দায়ে গ্রেফতার এড়াতে দুবাইয়ে স্বেচ্ছা নির্বাসনে রয়েছেন দেশটির সাবেক এই স্বৈরশাসক।

অল পাকিস্তান মুসলিম লীগ বলছে, পাকিস্তানের চিত্রালের উত্তরাঞ্চলের একটি আসন থেকে নির্বাচনে লড়াই করবেন মোশাররফ। এদিকে, দেশটির সাবেক ক্রিকেট তারকা ও বিরোধীদলীয় রাজনীতিক ইমরান খান বলেছেন, জাতীয় পরিষদের নির্বাচনে তিনিও একটি আসনে লড়াই করবেন। গত ৩১ মে পরবর্তী সংসদ নির্বাচনের জন্য পাকিস্তানের সংসদ ভেঙে দেওয়া হয়। দেশটির পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হতে চান সাবেক এই ক্রিকেট তারকা। তবে দুর্নীতির দায়ে সুপ্রিম কোর্ট নওয়াজ শরিফকে প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে গত জুলাইয়ে বরখাস্ত করলেও নির্বাচনে তার রাজনৈতিক দলের সঙ্গে ইমরান খানের তেহরিক-ই-ইনসাফের তীব্র লড়াই হতে পারে। এ ছাড়া পাকিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট আসিফ আলী জারদারিও তার রাজনৈতিক দল পাকিস্তান পিপলস পার্টির প্রার্থী দিচ্ছেন দেশজুড়ে। নির্বাচনে পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠ আসনে তার দল জয়ী হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সিন্ধু প্রদেশের দক্ষিণাঞ্চলের একটি আসন থেকে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন সাবেক এই প্রেসিডেন্ট।

২০০১ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট ছিলেন পারভেজ মোশাররফ। রাজদ্রোহ, জরুরি অবস্থা জারি, বেআইনি উপায়ে বিচারপতি বরখাস্ত, বেনজির ভুট্টো হত্যা এবং লাল মসজিদ তল্লাশি অভিযান-সংক্রান্ত বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে সাবেক এই পাকিস্তানি সেনাপ্রধানের নামে।

"