স্তন নিয়ে ভুল ধারণা

প্রকাশ : ১৫ জুলাই ২০১৭, ০০:০০

ডা. এস এম বখতীয়ার কামাল

বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে স্তন ঝুলে যাওয়া একটি সাধারণ শারীরবৃত্তীয় প্রক্রিয়া। মধ্যাকর্ষণ এবং স্তন চামড়ার স্থিতিস্থাপকতা হারানো বা হ্রাস পাওয়ার ফলে পেশিকলা, অস্থিবন্ধনী এবং চামড়া আপনার স্তনকে যে ধরে রাখে, তা ক্রমেই দুর্বল হয়ে যাওয়ার ফলস্বরূপ স্তন ঢিলে হয়ে যায় এবং তার যৌবনরূপ হারাতে থাকে। এমনকি জিনতত্ত্বীয় কারণে অল্প বয়সে স্তন ঢিলে হয়ে যাওয়া তথা ঝুলে যেতে পারে।

স্তন ঝুলে যাওয়ার কিছু কারণ

২২ থেকে ২৩ বছর বয়সে স্তন ঝুলে যাওয়ার নানাবিধ কারণ থাকতে পারে। বিএমআই (ইড়ফু সধংং রহফবী) বৃদ্ধি, স্তনের অতিরিক্ত আকার এবং ধূমপান (প্রত্যক্ষ/পরোক্ষ) প্রায় যে কোনো বয়সেই নারীর স্তন ঝুলে যাওয়ার অন্যতম কারণ।

তাছাড়া যেসব খেলাধুলায় স্তন সজোরে লাফালাফি করে যেমন ব্যাডমিন্টন, দৌড়, উচ্চলম্ফ ইত্যাদি কারণে স্তন ঝুলে যাওয়ার জন্য ব্যাপক ভূমিকা রাখে। এছাড়া যে কোনো কারণে স্তন ঝুলে যাওয়ার সঙ্গে অস্থিবন্ধনী এবং স্তনের চারপাশের চামড়ার স্থিতিস্থাপকতার বিষয়টি জড়িত। বিএমআই (ইড়ফু সধংং রহফবী) বৃদ্ধি এবং বড় আকারের স্তন সাধারণত মাধ্যাকর্ষণের ফলেই হয়ে থাকে। স্তনের পেশিকলা, নিচের দিকে টানা, স্তনের চামড়ার টানটান ভাব শিথিল, দুর্বল হয়ে যাওয়ার ফলে স্তনে ঢিলাভাব পরিলক্ষিত হয়। খেলাধুলার সময় ক্রমান্বয়ে স্তনের ওপর-নিচ কম্পনের ফলেও স্তনের পেশি দুর্বল হয়ে যেতে পারে, যা পরবর্তী সময়ে স্তনকে সঠিকমাত্রায় সাপোর্ট দেওয়ার সামর্থ্য হারায়।

স্তন বৃদ্ধি বা ঝুলে যাওয়া নিয়ে কিছু ভুল ধারণা

নারীদের মধ্যে ভুল ধারণা আছে যে, সন্তানকে স্তনদান করার কারণে অল্প বয়সে স্তন ঝুলে পড়ে। এ ধারণা এশিয়ার কিছু দেশে বিদ্যমান। তবে এ ভুল ধারণা মধ্যপ্রাচ্যের নারীদের বেলায় প্রকট। আমেরিকান সোসাইটি অব প্লাস্টিক সার্জনের বর্ণনা মতে, স্তনদানের সঙ্গে স্তনের আকারের সম্পর্ক নেই। এমনকি যেসব নারী একের অধিক সন্তানকে স্তন পান করান তাদেরও সন্তানকে স্তনদানের প্রত্যক্ষ কিংবা পরোক্ষ প্রভাব স্তনের আকারে পড়ে না।

ডা. এস এম বখতীয়ার কামাল

সহকারী অধ্যাপক (চর্ম, যৌন ও অ্যালার্জি)

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল

কামাল স্কিন সেন্টার। ০১৭১১৪৪০৫৫৮

"