পাইলস গোপন রোগ নয়

প্রকাশ : ১৩ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০

অধ্যাপক ডা. এস এম এ এরফান

মধ্যবয়সী আসিফ (ছদ্ম নাম) একদিন এসে বললেন, ডাক্তার সাহেব লজ্জার কথা, এমন রোগ হয়েছে কাউকে বলতে পারি না, কারো সঙ্গে আলোচনা করতে পারি না; কিন্তু আজ ১০ বছর ধরে ভুগছি। কবিরাজ, হোমিওপ্যাথি, বনাজি, কোনো ওষুধ বাকি রাখিনি; কিন্তু যা হওয়ার হয়েছে, এখন পায়খানাই বন্ধ হওয়ার উপক্রম। পরীক্ষা করে দেখলাম তার পাইলস হয়েছিল, এখন গ্যাংগ্রিন হয়ে গেছে, দীর্ঘদিন বাইরে ঙনংঃৎঁপঃবফ অবস্থায় থেকে থেকে। প্রকৃতপক্ষে এ রকম অনেক রোগীই মনে করেন, পাইলস ও পায়ুপথের বিভিন্ন রোগ গোপন রোগ, যা গোপন করে রাখতে হবে, প্রকাশ হলে যেন অত্যন্ত লজ্জার বিষয়। মহিলাদের ক্ষেত্রে বিষয়টি আরো বেশি। এভাবে গোপন রাখতে গিয়ে তারা বিভিন্ন অপচিকিৎসার শিকার হন আর রোগও অনেক জটিল আকার ধারণ করে। এসব রোগী এবং সবার অবগতির জন্য জানাচ্ছি, পাইলস বা পায়ুপথের সব রোগ কোনো গোপন রোগ নয়। পায়ুপথ শরীরের অন্যান্য অঙ্গের মতোই একটি অঙ্গ। বরং অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ, যা ছাড়া কারো চলা সম্ভব নয়।

আর শরীরের অন্যান্য অঙ্গের মতোই এ অঙ্গে অসুখ-বিসুখ হতে পারে। এটা কারো অভিশাপ বা পাপের ফল নয়, শারীরিক গঠনের কারণে বা খাদ্যাভ্যাসের কারণে অনেক রোগীর স্বাভাবিকভাবেই পাইলস, ফিসার ইত্যাদি রোগ পায়ুপথে হতে পারে। ঠান্ডা লাগলে যেমন সর্দি-কাশি হতে পারে, অনেকের অ্যাজমা, ডায়াবেটিস ইত্যাদি বংশগতভাবে থাকে। পায়ুপথের রোগগুলোও তেমনি। এসব রোগ গোপন রোগ নয়, যৌন রোগ নয়, পাপ বা অভিশাপের ফল নয়। তাই লজ্জা করে রোগ গোপন করে রোগকে জটিল করা উচিত নয়। সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে, কোলন এবং পায়ুপথে ক্যানসার হতে পারে, যার লক্ষণও পাইলস বা এজাতীয় রোগের মতো। এসব রোগ নিয়ে বসে থাকলে জীবন সংশয় অনিবার্য। তাই এসব নিয়ে একজন কোলোরেকটাল বিশেষজ্ঞের সঙ্গে কথা বলুন, ভালো থাকুন।

লেখক :

কোলোরেকটাল সার্জন

জাপান-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ হসপিটাল

জিগাতলা, ধানমন্ডি, ঢাকা

 

"