প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক রসুন

প্রকাশ : ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

কবিরাজ মুশাহিদ দেওয়ান

রসুনকে আমরা সাধারণত মসলা হিসেবেই চিনি। কিন্তু এটি একটি মূল্যবান ভেষজ। প্রাকৃতিক মহৌষধ রসুন নিয়মিত খেলে অনেক কঠিন রোগের হাত থেকে বাঁচা যায়। এটি ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া, ছত্রাক প্রতিরোধে কাজ করে। প্রতি ১০০ গ্রাম কাঁচা রসুনে ৫,৩৪৬ ঙজঅঈ তথা এন্টিঅক্রিডেন্ট ক্ষমতা থাকে যা প্রতিনিয়ত আমাদের দেহে রোগ প্রতিরোধ করে যায়। বলা হয়ে থাকে, হারবাল ঔষধের মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী এন্টিবায়োটিক হচ্ছে রসুন। এই প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক আপনাকে হার্টস্ট্রোক, আলসার ও উচ্চ রক্তচাপ থেকে রক্ষা করবে। আধুনিক চিকিৎসা বিজ্ঞান রসুনকে হার্টের শ্রেষ্ঠ ওষুধ বলে অভিহিত করেছেন। কারণ রক্তে অতিরিক্ত কোলেস্টেরল, এথেরোস্কে¬রোসিস ও রক্তনালিতে অনুচক্রিকার জমাটবদ্ধতা (থ্রম্বোসিস) হৃদরোগ ও হার্ট অ্যাটাকের মূল কারণ। আর রসুন রক্তের কোলেস্টরল কমায়, এথেরোস্কে¬রোসিস ও থ্রম্বোসিস প্রতিহত করে। তাই হৃদরোগ ও হার্টস্ট্রোক প্রতিরোধে প্রধান ভেষজ হচ্ছে রসুন।

এছাড়াও যৌনশক্তি বৃদ্ধিতে রসুনের ভূমিকা ব্যাপক। রসুনে বিদ্যমান সাইট্রুলিন যা পরবর্তীতে আরজিনিনে পরিণত হয়, তা পুরুষাঙ্গে রক্ত সরবরাহ ও শুক্রাণু উৎপাদন বৃদ্ধিতে কার্যকরী ভূমিকা রাখে। তাই যৌনস্বাস্থ্য সুরক্ষায় রসুন বিশ্বস্ত উপকারী বন্ধু। ৫/৬ কোয়া কাঁচা রসুন থেঁতো করে ২৫০ মিলি দুধে মিশিয়ে জ্বাল দিয়ে ছেঁকে নিয়ে এক মাস সেবন করলে যৌন দুর্বলতা থাকবে না। এছাড়াও ২ কোয়া রসুন গাওয়া ঘিয়ে ভেজে ভাতের সাথে নিয়মিত খেলে দাম্পত্যজীবন সুখময় হয়। তাছাড়া রসুন মেদও কমায়। তাই আসুন নিয়মিত রসুন খাওয়ার চেষ্টা করি।

লেখক : আয়ুর্বেদিক ও ভেষজ বিশেষজ্ঞ

"