হার্ট ব্লকের ব্যথা

প্রকাশ | ২৬ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

ডা. মো. তৌফিকুর রহমান (ফারুক)

হার্টের ব্লকে বুকের ব্যথা কোথায় হয়?

হৃৎপিন্ডের রক্তনালিতে ব্লকজনিত ব্যথা সাধারণত বুকের মাঝখানে হয়, তবে কখনো কখনো বাঁ-পাশে অথবা ডান পাশেও হতে পারে। এ ব্যথা বুকের ওপর দিকে গলার কাছে এবং বাঁ হাত দিয়ে ছড়িয়ে পড়তে পারে।

হৃৎপিন্ডের রক্তনালির ব্লকজনিত ব্যথা আর কোথায় কোথায় হতে পারে?

হৃৎপিন্ডের রক্তনালির ব্লকজনিত ব্যথা ওপরের পেটে হতে পারে বা গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা ভেবে ভুল হতে পারে। তা ছাড়া এ ধরনের ব্যথা শুধু গলার ওপর চাপ চাপ ধরনের হতে পারে, মনে হয় গলায় কিছু আটকে আছে এবং নিঃশ্বাস বন্ধ হয়ে আসবে। এ ছাড়া হৃৎপিন্ডের ব্লকজনিত ব্যথা পিঠের পেছনে হতে পারে, ডান হাত বা বাঁ হাতেও হতে পারে।

হৃৎপিন্ডের রক্তনালির ব্লকজনিত ব্যথা হলে কী সমস্যা হতে পারে?

হৃৎপিন্ডের ব্লকজনিত ব্যথা হলে তা গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা ভেবে ভুল হতে পারে। তা পরিণামে সর্বনাশ ডেকে আনতে পারে। অনেক সময় ওপরের পেটে ব্যথা হলে রোগী নিজে অথবা জুনিয়র ডাক্তাররা তা গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা মনে করে অ্যান্টাসিড বা গ্যাস্ট্রিকের অন্য ওষুধ দিয়ে রোগীকে আশ্বস্ত করাতে পারেন, যা রোগীর জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর হতে পারে।

পেটব্যথা গ্যাস্ট্রিকের জন্য না রক্তনালির ব্লকের জন্য, তা কীভাবে বোঝা যায়?

গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা সাধারণত বহুদিন ধরে মাঝে মাঝে হয়। কিন্তু হার্টের রক্তনালির ব্লকের কারণে হার্ট অ্যাটাক হলে ওপরের পেটের ব্যথা প্রথমবারের জন্য বা নতুন ধরনের ব্যথা অনুভূত হয় এবং এর সঙ্গে যদি প্রচুর ঘাম হয় বা বমি বমি ভাব হয় তবে তা হার্ট অ্যাটাকের জন্য হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

হার্ট অ্যাটাকের ফলে পেটব্যথা হলে সে ক্ষেত্রে কী করা উচিত?

কোনো রোগীর কোনো দিন পেটে ব্যথা না হলে এবং হঠাৎ করে পেটে ব্যথা হলে, সঙ্গে প্রচুর ঘাম হলে বা বমি হলে সে ক্ষেত্রে যেহেতু হৃৎপিন্ডের ব্লকজনিত কারণে হওয়ার সম্ভাবনা বেশি, তাই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব কাছের হাসপাতাল বা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ইসিজি বা রক্ত পরীক্ষা যেমন কার্ডিয়াক, ট্রপোনিন আই পরীক্ষাটি করিয়ে নেওয়া উচিত। হৃৎপি-ের রক্তনালিতে ব্লকজনিত বুকে ব্যথার বৈশিষ্ট্য কী?

হৃৎপি-ের রক্তনালিতে ব্লকজনিত বুকে ব্যথা সাধারণত বুকের মাঝখানে হয়। পরিশ্রম করলে বাড়ে, বিশ্রাম নিলে কমে, নাইট্রেট জাতীয় ওষুধ জিহ্বার নিচে দিলে বা জিহ্বার নিচে স্প্রে করলে কমে। বুকের ব্যথা বাঁ হাতের ভেতরের দিক দিয়ে নিচের দিকে নামে, বুকে ব্যথার সঙ্গে সঙ্গে অতিরিক্ত ঘাম হতে পারে।

বুকে ব্যথা হলে কী করণীয়?

খেয়াল রাখতে হবে, পরিশ্রমের সময় বুকে ব্যথা হয় কিনা? হলে তা হৃৎপি-ের রক্তনালিতে ব্লকজনিত কারণে হতে পারে। তাই অতিসত্বর হৃদরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ প্রয়োজন। ইসিজি, ইকোকার্ডিওগ্রাম, ইটিটি এবং অন্য পরীক্ষা, যেমন করোনারি এনজিওগ্রাম ও প্রয়োজনে সিটি এনজিওগ্রাম বা ইনভেসিভ এনজিওগ্রাম করাতে হবে। মনে রাখতে হবে, হৃৎপিন্ডের রক্তনালিতে ব্লকজনিত কারণে বুকে ব্যথা হলে কিন্তু ইসিজি স্বাভাবিক থাকতে পারে।

লেখক : সহযোগী অধ্যাপক, হৃদরোগ ও বাতজ্বর বিশেষজ্ঞ, জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল, ঢাকা

"