দৌড় একটি অদ্বিতীয় ব্যায়াম

প্রকাশ : ০৭ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:০০

ডা. মহসীন কবির

নিজেকে ফিট রাখতে, সুস্থ ও সুঠাম রাখতে দৌড় অদ্বিতীয় একটি ব্যায়াম। বিশেষজ্ঞরা বলেন, দিনে ৩০ থেকে ৪৫ মিনিটের একটি দৌড় আপনার স্বাস্থ্য সুুরক্ষায় অনেক পরিবর্তন আনতে পারে। তাই ফিট থাকতে চাইলে সপ্তাহে প্রতিদিন নিয়ম করে দৌড়াতে শুরু করুন। আর প্রতিদিন যদি না পারেন তবে অন্তত সপ্তাহে তিন থেকে চার দিন দৌড়াতে চেষ্টা করুন। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, দৌড় এমন এক ব্যায়াম, যা থেকে পাওয়া যায় অনেক উপকার। দৌড়ানোর ফলে শরীরের প্রতিটি জয়েন্ট, মাংসপেশি নড়াচড়ার পাশাপাশি রক্ত সঞ্চালনের গতি থাকে স্বাভাবিক ও বাধাহীন। ফলে আপনার ফুসফুস ও হৃৎপি-ের কাজ করার ক্ষমতা কয়েক গুণ বেড়ে যায়। এ ছাড়া দৌড় শারীরিক স্বাস্থ্যের পাশাপাশি মানসিক স্বাস্থ্যেরও উন্নতি ঘটায়। অনেকে আবার স্বাস্থ্য নিয়ে দৌড়ানোর পরামর্শকে আমলে নেন না, কারণ তারা মনে করেন, দৌড়ানো খুব পরিশ্রমের কাজ। কিন্তু এটিতে একটু পরিশ্রম হলেও মনে রাখবেন এতে আপনার শারীরিক লাভই বেশি। প্রথম দিকে একটু শারীরিক কষ্ট হলেও নিয়মিত দৌড়ালে কয়েক দিন পরই শরীর সে ধকল সামলে নিয়ে আপনাকে দেবে এক অনাবিল প্রশান্তি ও আপনি হয়ে উঠবেন প্রাণচাঞ্চল্যে ভরপুর। নিয়মিত দৌড়ালে আপনার রাতটিও ভালো কাটবে, ঘুম হবে চমৎকার। নিয়মিত দৌড় হৃৎপি-, ফুসফুস ও রক্তনালিকে সতেজ-সাবলীল করে তোলে। দৌড় আপনার মানসিক ক্লান্তি, অবসন্ন বা বিষণœতাও দূর করতে সাহায্য করে। এ ছাড়া ডায়াবেটিস ও হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেক কমিয়ে দেয়। এক গবেষণায় দেখা গেছে, দৌড় মানসিক চাপ কমাতে ব্যাপক কাজে লাগে। এটি মস্তিষ্ককে পরিষ্কার রাখতে এবং মনোযোগ বাড়াতে সাহায্য করে। এ ছাড়া দৌড় ওজন এবং মেদ কমায়। শারীরিক গঠন সুন্দর ও মজবুত করে। নিয়মিত দৌড় যৌন জীবনের জন্যও উপকারী। দৌড়ানোর ফলে হাড় ও মাংসপেশির ক্ষমতা অনেক বেড়ে গিয়ে আমাদের জয়েন্টগুলোকে করে তোলে সক্রিয়। আর এতে বাত ব্যথা ও মাংপেশি জয়েন্টের অনেক রোগ থেকেই মুক্তি পাওয়া যায়। যেকোনো বয়সের লোকই নিয়মিত দৌড়াতে পারেন। এক দৌড়ে যখন এত উপকার তখন আর সময় নষ্ট না করে আজ থেকেই নিয়মিত দৌড়াতে শুরু করুন। মনে রাখবেন, সুস্থ-স্বাভাবিক ও ফিট জীবনযাপনের মহাওষুধ হলো দৌড়।

লেখক : জনস্বাস্থ্যবিষয়ক গবেষক

প্রিন্সিপাল, ইনস্টিটিউট অব জেরিয়েট্রিক মেডিসিন (আইজিএম)

বাংলাদেশ প্রবীণ হিতৈষী সংঘ

ঢাকা

"