লন্ডনে মসজিদের সামনে ভিড়ের ওপর ভ্যান

প্রবাসী বাংলাদেশি নিহত

এই ঘটনা ভয়ংকর : থেরেসা মে হ আমি পুরোপুরি হতভম্ব : জেরেমি করবিন

প্রকাশ : ২০ জুন ২০১৭, ০০:০০

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

যুক্তরাজ্যের লন্ডনের একটি মসজিদ থেকে বের হওয়ার সময় ভিড়ের মধ্যে একটি ভ্যান ‘উঠিয়ে দেওয়ার’ ঘটনায় একজনের মৃত্যু হয়েছে। তিনি একজন প্রবাসী বাংলাদেশি বলে প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে দ্য টেলিগ্রাফ জানিয়েছে। তবে তার নাম-পরিচয় জানা যায়নি। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো প্রায় দশজন। উত্তর লন্ডনের সেভেন সিস্টারস রোডের ফিন্সবুরি পার্ক মসজিদের কাছে রোববার এই হামলা হয়। এটি ব্রিটেনের অন্যতম বড় মসজিদ। আবদুল রহমান নামের একজন প্রত্যক্ষদর্শী বিবিসিকে বলেছেন, ওই ভ্যানের চালক চিৎকার করে বলছিলেন-‘সব মুসলমানকে মেরে ফেল।’ নিহত ওই ব্যক্তি নামাজ আদায় শেষে বাড়ি ফিরছিলেন। যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে এই ঘটনাকে ‘ভয়ংকর’ বলে বর্ণনা করেছেন। হতাহত হওয়ার ঘটনায় সমবেদনা জানিয়েছেন তিনি। লেবার পার্টির নেতা জেরেমি করবিন হামলার নিন্দা জানিয়েছেন। সমবেদনা প্রকাশ করেছেন। তিনি টুইটারে লিখেছেন, ‘আমি পুরোপুরি হতভম্ব।’

সুলতান আহমেদ নামের দাতব্য কাজে যুক্ত এক কর্মী জানিয়েছেন, তার চাচাও ঘটনাস্থলে ছিলেন। মসজিদ ছাড়ার পর তার চাচার চোখের সামনেই ভ্যানটি মুসল্লিদের ওপর উঠিয়ে দেওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে প্রবীণ ওই বাংলাদেশি মারা যান। লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশ জানিয়েছে, এ ঘটনায় এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সন্ত্রাসবিরোধী কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে আছেন। বিষয়টি তারা তদন্ত করছেন।

মুসলিম কাউন্সিল অব ব্রিটেন (এমসিবি) বলেছে, মুসল্লিদের ওপর উদ্দেশ্যমূলকভাবে একটি ভ্যান তুলে দেওয়া হয়েছে। সংস্থাটি যুক্তরাজ্যের মসজিদ ঘিরে অতিরিক্ত নিরাপত্তা দাবি করেছে। ঘটনার পর অনলাইনে পোস্ট হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, ঘটনাস্থলে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি বিরাজ করছে। লোকজন ছোটাছুটি করছে। আহত ব্যক্তিদের সহায়তায় মানুষ এগিয়ে আসছে।

সেভেন সিস্টারস রোডের একটি ফ্ল্যাট বাস করা এক নারীর ভাষ্য, লোকজনকে তিনি চিৎকার ও আর্তনাদ করতে দেখেছেন। একটি ভ্যান লোকজনের ওপর উঠে যাচ্ছে বলে সবাই চিৎকার করে বলছিল। মসজিদের বাইরে একটি সাদা ভ্যান থেমে ছিল। নামাজ শেষে মসজিদ থেকে বেরিয়ে আসা লোকজনকে ভ্যানটি আঘাত করছিল বলে মনে হয়। হামলাকে ‘গুরুতর ঘটনা’ বলে অভিহিত করেছে লন্ডন পুলিশ। তারা বলছে, রাত ১২টা ২০ মিনিটের দিকে তাদের খবর দেওয়া হয়। জানানো হয়, একটি ভ্যান মুসল্লিদের ওপর দিয়ে চালিয়ে দেওয়া হয়েছে। মুসল্লিরা নামাজ শেষ মসজিদ থেকে বেরিয়েছিলেন।

ইন্টারনেটে আসা ভিডিওতে ঘটনাস্থলে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি দেখা যায়; আহতদের সাহায্য করতে সে সময় ছোটাছুটি করছিলেন অনেকে। রাস্তায় পড়ে থাকা এক আহত ব্যক্তির বুকে চাপ দিয়ে শ্বাস-প্রশ্বাস স্বাভাবিক রাখার (সিআরপি) চেষ্টা করতে দেখে যায় এক ব্যক্তিকে। মাথা ফেটে যাওয়া আরেকজনের মাথা কাপড় দিয়ে বেঁধে দিচ্ছেলেন কয়েকজন। এগিয়ে আসা ভ্যানটির সামনে থেকে একদিকে ঝাঁপিয়ে পড়ে কিভাবে আত্মরক্ষা করেছেন তা জানিয়েছেন এক প্রত্যক্ষদর্শী। তিনি বলেন, ‘ভ্যানটি সোজা আমাদের সবার দিকে এগিয়ে আসে। সেখানে অনেক মানুষ ছিল। আমাদের সরে যেতে বলছিল কেউ।’

"