পাকিস্তানে বিমান বিধ্বস্ত : সব আরোহীর মৃত্যুর আশঙ্কা!

যাত্রী ছিল ১০৬

প্রকাশ : ২৩ মে ২০২০, ০০:০০

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

৯৮ আরোহী ও ৮ জন ক্রু নিয়ে পাকিস্তানে বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে। সিন্ধু প্রদেশের রাজধানী করাচিতে বিধ্বস্ত হওয়া পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইনসের (পিআইএ) বিমান থেকে অন্তত ১৩ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। স্থানীয় একটি সূত্রের বরাত দিয়ে পাকিস্তানি সংবাদ মাধ্যম ডন গতকাল শুক্রবার এতথ্য জানিয়েছে। তবে দ্য ইকোনমিক টাইমস জানিয়েছে বিমানটির আরোহী ও ক্ররা কেউ বেঁেচ নেই। এপির সংবাদের আরোহীদের কেউ বেঁেচ নেই বলে জানানো হয়েছে। গতকাল সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা নাগাদ প্রাপ্ত তথ্যে এ খবর জানা গেছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এ ঘটনায় গভীর দুঃখ প্রকাশ করে দুর্ঘটনার বিষয়টি দ্রুত তদন্ত করার আশ্বাস দিয়েছেন।

ডন জানায়, দুর্ঘটনাস্থল থেকে ১৩টি লাশ উদ্ধার করে হাসপাতলে পাঠানো হয়েছে। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে

আহত আরো ২৫ থকে ৩০ জনকে। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত উদ্ধার তৎপরতা চলছিল।

১১ জনের মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করেছেন সিন্ধু প্রদেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী আজরা পেঁচু। জিন্নাহ পোস্ট গ্র্যাজুয়েট মেডিকেল সেন্টারের সামনে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ১১ জনের লাশ এবং ছয়জনকে আহত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে। তিনি আরো জানান বিমানটি একটি আবাসিক এলাকায় বিধ্বস্ত হয়। এতে ৫-৬টি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তার মতে উদ্ধার তৎপরতা শেষে জানা জানে এসব বাড়ির কেউ হাতাহত হয়েছেন কিনা।

গতকাল দুপুরে লাহোর থেকে ছেড়ে আসা এয়ারবাস এ-৩২০ বিমানটি করাচির জিন্নাহ ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে নামার আগে তার কাছের একটি আবাসিক এলাকায় বিধ্বস্ত হয়। পাকিস্তানের পতাকাবাহী এই বিমানে ৯০ জন যাত্রী এবং ৮ জন ক্রু ছিলেন বলে জানা গেছে। তবে প্রাথমিকভাবে বিবিসি জানিয়েছিল, বিধ্বস্ত হওয়ার সময় বিমানটিতে ৯০ জন আরোহী ছিলেন।

করোনাভাইরাসের কারণে লকডাউনে বন্ধ থাকার পর বাণিজ্যিক ফ্লাইট চালুর অনুমতির কয়েকদিনের মাথায় এই দুর্ঘটনা ঘটল। পিআইএর মুখপাত্র জানান, স্থানীয় সময় দুপুর আড়াইটার দিকে নিয়ন্ত্রণ কক্ষের সঙ্গে বিমানটির যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়। এর কিছু সময়ের মধ্যেই এটি বিধ্বস্ত হয়।

দুর্ঘটনার পরপরই খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধারকর্মীরা তৎপরতা শুরু করেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবিতে বিমানটি থেকে প্রচুর ধোঁয়া উড়তে দেখা গেছে। বিমান দুর্ঘটনার কারণ এখনো নিশ্চিত করে কিছু জানা যায়নি। তবে পিআইএর প্রধান নির্বাহী এয়ার ভাইস মার্শাল আরশাদ মালিক বলেছেন, বিমানটিতে যান্ত্রিক ত্রুটি ছিল বলে নিয়ন্ত্রণ কক্ষকে জানিয়েছিলেন পাইলট। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আকাশেই বিমানটিতে আগুন ধরে যায়।

 

"

সর্বাধিক পঠিত