রাষ্ট্রপতির কাছে খুনি মাজেদের প্রাণভিক্ষা

মৃত্যুপরোয়ানা কারাগারে

প্রকাশ : ০৯ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনি মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত আসামি ক্যাপ্টেন (বরখাস্ত) আবদুল মাজেদের মৃত্যুপরোয়ানা কেরানীগঞ্জের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে পৌঁছেছে। তাকে পরোয়ানা পড়ে শোনানো হয়েছে। তিনি কারা কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আবেদন করেছেন। গতকাল বুধবার এ খবর নিশ্চিত করেন ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের (কেরানীগঞ্জ) জেলার মাহবুবুল ইসলাম। তিনি বলেন, তার মৃত্যু পরোয়ানা কারাগারে পৌঁছেছে। তিনি গত মঙ্গলবার থেকে কারাগারে আছেন এবং তাকে কয়েদির পোশাক পরানো হয়েছে। এর আগে গতকাল বুধবার দুপুরে ঢাকার মহানগর দায়রা জজ এন হেলাল উদ্দিন চৌধুরী আবদুল মাজেদের বিরুদ্ধে মৃত্যু পরোয়ানা জারি করেন। এজন্য মাজেদকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে আদালতে আনা হয়। পরে রাষ্ট্রপক্ষ আদালতে মাজেদের মৃত্যু পরোয়ানা জারির আবেদন জানায়। এরপর বিচারক মাজেদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ ও মামলার রায় পড়ে শোনান এবং তাকে বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে মৃত্যু পরোয়ানা জারি করেন। এ সময় ঢাকা মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর পিপি আবদুল্লাহ আবুসহ রাষ্ট্রপক্ষের একাধিক আইন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) আবদুল মান্নান বলেন, আমরা রাষ্ট্রপক্ষ থেকে মাজেদকে বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখানোর জন্য আবেদন করি। আদালত তাকে আজ (বুধবার) আদালতে উপস্থিত করার জন্য দিন ধার্য করেন। ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে তাকে আদালতে উপস্থিত করা হয়। এ সময় বিচারক তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ ও মামলার রায় পড়ে শোনান। এরপর বিচারক তাকে বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে সাজা পরোয়ানা জারি করেন। আসামি রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করতে পারবে কি-নাÑ এমন প্রশ্নের উত্তরে পিপি বলেন, তিনি দীর্ঘদিন ধরে পলাতক ছিলেন।

আমার জানা মতে, তিনি আপিল করার সুযোগ পাবেন না। বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের অন্যতম কৌশলী মোশাররফ হোসেন কাজল জানান, আবদুল মাজেদের মৃত্যু পরোয়ানা জারি হয়েছে। এই পরোয়ানা এখন জেল কর্তৃপক্ষ তাকে পড়ে শোনাবেন। পরে এই পরোয়ানা ঢাকা জেলা প্রশাসকের কাছে পাঠানো হবে এবং জেলা প্রশাসক আগামী ২৮ দিনের মধ্যে আবদুল মাজেদের দণ্ড কার্যকর করতে ব্যবস্থা নেবেন।

 

"