উত্তরে শীতের প্রকোপ, শৈত্যপ্রবাহ অব্যাহত

প্রকাশ : ২২ জানুয়ারি ২০২০, ০০:০০

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

দেশের বিভিন্ন জেলার ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া শৈত্যপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে এবং আরো বিস্তার লাভ করতে পারে বলে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে। আবহাওয়া অফিস জানায়, রংপুর বিভাগসহ মাদারীপুর, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, মৌলভীবাজার, রাজশাহী, পাবনা, নওগাঁ, যশোর ও চুয়াডাঙ্গা জেলাগুলোর ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে তা অব্যাহত থাকতে পারে এবং বিস্তার লাভ করতে পারে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারা দেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে।

এছাড়া মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ঘনকুয়াশা পড়তে পারে। সারা দেশে রাতের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে। দেশের পূর্বাঞ্চলে দিনের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে এবং তা অন্যত্র প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

গতকাল মঙ্গলবার তেঁতুলিয়ায় সর্বনি¤œ ৭ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বোচ্চ টেকনাফে ২৯ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।

পূর্বাভাসে আরো বলা হয়, উপমহাদেশীয় উচ্চ চাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ বাংলাদেশের পশ্চিমাঞ্চল পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। দিনাজপুরের হিলি, নীলফামারী ও দিনাজপুরের শীতের খবর জানাচ্ছেন সেখানকার প্রতিনিধিরা।

হিলিতে বেড়েছে শীতের প্রকোপ

হিলিতে ঘনকুয়াশায় যানবাহন চলাচল করছে হেডলাইট জ্বালিয়ে। গতকাল হঠাৎ গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির কারণে হিলিতে ফের বাড়ছে শীতের প্রকোপ। সেই সঙ্গে উত্তরের হিমেল বাতাসে শীতের তীব্রতা আরো বেড়েছে। এতে বিপাকে পড়ছেন খেটে খাওয়া মানুষ। রোজগার কমে গেছে তাদের।

হিলি বাজারের নৈশপ্রহরী কোরবান আলী ও ভ্যানচালক মুশফিকুর ইসলাম বলেন, আবার শীত পড়ার কারণে লোকজন তেমন বের হচ্ছে না। দিনাজপুর আবহাওয়া অধিদফতরের ইনচার্জ তোফাজ্জল হোসেন জানান, মঙ্গলবার দিনাজপুরের সর্বনি¤œ তাপমাত্রা ছিল ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

মাঘের শীতে বিপর্যস্ত নীলফামারী

মাঘের শীতে কাঁপছে হিমালয়ের পাদদেশে থাকা উত্তরের জেলা নীলফামারী। গত তিন দিন থেকে ঘনকুয়াশা আর হিমশীতল বাতাসে শীতের তীব্রতায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জেলার স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৬টায় নীলফামারী জেলায় সর্বনি¤œ তাপমাত্রা ৮ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করেছে সৈয়দপুর বিমানবন্দর আবহাওয়া দফতর। বেলা বাড়ার সঙ্গে তাপমাত্রা আরো কমতে পারে বলে জানিয়েছেন সৈয়দপুর বিমানবন্দর আবহাওয়া দফতরের আবহাওয়া সহকারী লোকমান হাকিম।

তিনি বলেন, গত শনিবার থেকে জেলায় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিপাতের পর বাড়তে থাকে শীতের প্রকোপ। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৬টা ও ৯টায় সর্বনি¤œ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ৮ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ২৬ জানুয়ারির থেকে তাপমাত্রা আরো কমে ৬ থেকে ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমে আসার সম্ভাবনা রয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে আকাশ ঘনকুয়াশায় ঢাকা ছিল দেখা মেলিনি সূর্যের। সড়ককে হেডলাইট জ¦ালিয়ে যানবাহন চলাচল করতে দেখা গেছে।

ঠান্ডায় কাঁপছে দিনাজপুরের মানুষ!

গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির পর দিনাজপুরে ঠান্ডা বাতাসে আবারো বেড়েছে শীতের তীব্রতা। কয়েক দিন বিরতির পর আবারো কমে এসেছে দিনের তাপমাত্রাও। তবে গতকাল মঙ্গলবার সারা দিন সূর্যের মুখ দেখা মেলেনি। গতকাল দেশের সর্বনি¤œ তাপমাত্রা ৮ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয় দিনাজপুরে। পরে সেটা আরো কমে দাঁড়িয়েছে ৮ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসে।

গ্রামে শীতের তীব্রতা আরো বেশি। খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা করছে সাধারণ মানুষ। গবাদি পশুকে চটের বস্তা দিয়ে ঢেকে দেওয়া হচ্ছে। হাসপাতালে শীতজনিত রোগীর ভিড় বাড়ছে।

 

"