মাদ্রাসা-শিক্ষকের পিটুনিতে শিশুর মৃত্যু

প্রকাশ : ০৯ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০

মাদারীপুর প্রতিনিধি

মাদারীপুরে মাদ্রাসার শিক্ষকের পিটুনিতে দ্বিতীয় শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনায় ওই মাদ্রাসার তিন শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক পলাতক রয়েছেন। স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, আসিফকে মাদারীপুর সদর উপজেলা গাছবাড়িয়া কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক ইউসুফ আলী কয়েক দিন আগে মারধর করেন। দ্বিতীয় দফায় বুধবার আবার মারধর করেন। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসক আসিফকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় হাসপাতাল থেকে আবুল বাসার নামে এক মাদ্রাসার শিক্ষককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে পুলিশ। পরে গত বৃহস্পতিবার ও গতকাল শুক্রবার আবুল বাসারসহ তিন শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়।

নিহত আসিফের বাবা আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘কিছুদিন আগে আসিফকে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে মারধর করেন মাদ্রাসার শিক্ষক ইউসুফ আলী। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় বাড়ি চলে আসে সে। গত মঙ্গলবার সকালে আবার আসিফকে মাদ্রাসায় নিয়ে যাই। পরের দিন বুধবার সকালে আসিফকে দ্বিতীয় দফায় মারধর করেন ওই শিক্ষক। পরে বিকেলে আমাদের কাছে ফোনে জানানো হয় আসিফ অসুস্থ, তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এসে দেখি আমার ছেলে মারা গেছে।’

আসিফের চাচি রোকেয়া বেগম জানান, আসিফ দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র এবং সে মাদ্রাসাতেই থাকত। গত বুধবার সকালে মাদ্রাসার শিক্ষক ইউসুফ আলী তাকে পিটিয়ে আহত করেন। পরে আবুল বাশার নামের অন্য এক শিক্ষক আসিফকে মাদারীপুর সদর হাসপাতলে নিয়ে যান।

সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার অখিল সরকার জানান, বুধবার বিকেলে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসার পরই আসিফের মৃত্যু হয়। মাদারীপুর সদর মডেল থানার ওসি সওগাতুল আলম জানান, এ বিষয় সদর থানায় একটি মামলা করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার ও গতকাল শুক্রবার আবুল বাশারসহ মোট তিনজন শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

"