সিরিজে সমতা : রফাদফা নাগপুরে

প্রকাশ : ০৮ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০

সাহিদ রহমান অরিন

রাজকোটে বাংলাদেশের বিপক্ষে টস করতে নেমেই গড়ে ফেললেন রেকর্ড। প্রথম ভারতীয় হিসেবে ১০০ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলার নজির গড়লেন রোহিত শর্মা। এমন অনন্য মাইলফলক ছোঁয়ার দিনটাকে কে না স্মরণীয় করে রাখতে চায়? রোহিতও নিশ্চয় সেটাই চেয়েছিলেন। সেজন্যই বোধহয় খোলস ছেড়ে বেরোনোর লক্ষ্যে বৃহস্পতির রাতটাকেই স্থির করে রেখেছিলেন ভারত অধিনায়ক।

ক্রিকেটারদের নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় কত-শত আলোচনা হয়, নানা রকম উক্তিও জুড়িয়ে দেওয়া হয়। রোহিতকে নিয়েও রয়েছে সে রকম একটা উক্তি। সনি আট চ্যানেলের কার্টুন চরিত্র নিমকির নাম নিশ্চয় সবাই শুনেছেন! বলা হয়ে থাকে, ‘নিমকি যখন নিক্স হয়, তখন সে সব পারে। আর রোহিত যখন হিটম্যান হয়, তখন খালি ছক্কাই মারে!’

কাল দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ‘ছক্কার বৃষ্টি’ ঝরানো হিটম্যানকেই দেখল বিশ্ব, সাক্ষী থাকল মাহমুদউল্লাহ-মুশফিকরা। চাপের মুখে কিভাবে ঘুরে দাঁড়াতে হয়, সমালোচনার জবাবগুলো মুখে নয়; ব্যাট দিয়েই যে দিতে হয়, নিজের কাজগুলো কিভাবে দায়িত্ব সহকারে করে যেতে হয় কিংবা দলকে কিভাবে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে হয়Ñ তার সবটাই আরেকবার চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিলেন রোহিত। তার মহাবিস্ফোরক ইনিংসের কাছে মাথা নোয়াল বাংলাদেশ। পাত্তা না পাওয়া ম্যাচটা হারল ৮ উইকেটে। তাতে সিরিজে ফিরল সমতা, ভারত ১-১ বাংলাদেশ।

এই ম্যাচের আগের কয়েকটা দিন গেমপ্ল্যানের চেয়েও অধিক আলোচনায় ছিল ঘূর্ণিঝড় ‘মহা’ আঘাত হানার শঙ্কা। ম্যাচের দিন প্রাকৃতিক সে ঝড়ের শঙ্কা কাটল ঠিকই, তবে রোহিত ব্যাট হাতে যে ঝড় তুললেন (৪৩ বলে ৮৫) সেটা তো মহাপ্রলয়ই! স্বরাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামের ব্যাটিং স্বর্গে বাংলাদেশের সংগ্রহ ১৫৩ রানকে মামুলি পুঁজিই বলা চলে। কাল সেই লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে রোহিত শর্মা-শিখর ধাওয়ানের উড়ন্ত উদ্বোধনী জুটিতেই ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারণ হয়। টাইগার বোলারদের ওপর নির্মম নির্যাতন চালিয়ে নবম ওভারেই তিন অঙ্ক ছুঁয়ে ফেলে ভারত। ১০.৫ ওভারে ভাঙে এ জুটি। লেগ স্পিনার আমিনুল বিপ্লবের বলে ধাওয়ান বোল্ড হন ব্যক্তিগত ৩১ রানে। ততক্ষণে স্বাগতিকরা জয় থেকে কয়েক হাত দূরে। খানিক বাদে রোহিতকেও ফেরান বিপ্লব। এই উইকেটটাও শুধুই সান্ত¡না। বাকি পথটুকু অনায়াসেই পাড়ি দেন লোকেশ রাহুল (৮*) ও শ্রেয়াস আয়ার (২৪*)। ভারত ম্যাচ জেতে ২৬ বল অক্ষত রেখেই। মাইলফলকের রাতে মহাপ্রলয় ঘটিয়েছেন। ম্যাচসেরার পুরস্কারটা যে রোহিতের হাতেই উঠেছে, সেটা বোধহয় না লিখলেও চলত!

রোববার তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে নাগপুরে। সিরিজের রফাদফা তাহলে রোহিতের জন্মশহরেই হচ্ছে!

সংক্ষিপ্ত স্কোর

বাংলাদেশ : ১৫৩/৬ (২০ ওভার)

ভারত : ১৫৪/২ (১৫.৪ ওভার)

ফল : ভারত ৮ উইকেটে জয়ী