স্বল্পকালীন সংসদ অধিবেশন শুরু

প্রকাশ : ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০

সংসদ প্রতিবেদক

একাদশ জাতীয় সংসদের চতুর্থ অধিবেশন শুরু হয়েছে। গতকাল রোববার বিকাল ৫টায় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে নিয়ম রক্ষার এই অধিবেশন শুরু হয়। মাত্র পাঁচ কার্যদিবসের স্বল্পকালীন এ অধিবেশন আগামী ১২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে।

সংসদ অধিবেশন শুরুর আগে বিকাল ৪টায় সংসদ ভবনে স্পিকারের সভাপতিত্বে কার্য উপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে ১২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অধিবেশনের মেয়াদকাল নির্ধারণ করা হয়।

প্রতিদিন বিকাল ৫টায় অধিবেশন শুরু হবে। তবে স্পিকার চাইলে অধিবেশনের সময় বাড়াতে বা কমাতে পারেন।

স্পিকারের সভাপতিত্বে কার্য উপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে অংশ নেন সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ ছাড়া বৈঠকে অংশ নেন বিরোধী দলীয় উপ-নেতা বেগম রওশন এরশাদ, আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, রাশেদ খান মেনন, চিফ হুইপ নূর ই আলম চৌধুরী, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া প্রমুখ।

রেওয়াজ অনুযায়ী অধিবেশন পরিচালনার জন্য পাঁচজন প্যানেল সভাপতি মনোনিত করেছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। এই প্যানেল সভাপতিরা স্পিকার ও ডেপুটি স্পিকারের অনুপস্থিতিতে অগ্রবর্তিতা অনুসারে সভাপতির দায়িত্ব পালন করবেন। চতুর্থ অধিবেশনে প্যানেল সভাপতিরা হলেন আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য উপাধ্যক্ষ আবদুস শহিদ, এনামুল হক, মৃণাল কান্তি দাস, কাজী ফিরোজ রশীদ ও জয়া সেনগুপ্ত।

সংসদ সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, একাদশ জাতীয় সংসদের চতুর্থ অধিবেশনে সংসদে উত্থাপণের জন্য তিনটি সরকারি বিলের নোটিশ পাওয়া গেছে। এ ছাড়া আগের অধিবেশনে অনিষ্পন্ন দুটি সরকারি বিল পাসের জন্য কমিটিতে পরীক্ষাধীন রয়েছে। এদিকে বেসরকারি সদস্যদের নিকট হতে একটি বিলের নোটিশ পাওয়া যায়। এ ছাড়া পূর্বে প্রাপ্ত ও অনিষ্পন্ন একটি বেসরকারি বিল রয়েছে।

এই অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর জন্য ৭০টি ও মন্ত্রীদের জন্য ১ হাজার ৫৫৩টিসহ প্রাপ্ত মোট প্রশ্নের সংখ্যা ১ হাজার ৬২৩টি। সিদ্ধান্ত প্রস্তাব (বিধি ১৩১) ১০৯টি, মূলতবী প্রস্তাবের সংখ্যা (বিধি ৬২) ১৫টি ও মনোযোগ আকর্ষণের নোটিশ (বিধি ৭১) ৬০টি পাওয়া গেছে। এর আগে গত ১১ জুলাই একাদশ জাতীয় সংসদের তৃতীয় তথা বর্তমান সরকারের প্রথম বাজেট অধিবেশন শেষ হয়।

 

"