সাংগঠনিক শৃঙ্খলায় গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত আসছে আ.লীগে

* বহিষ্কার হতে পারেন ‘বিদ্রোহী’রা * হারাতে পারেন দলীয় গুরুত্বপূর্ণ পদ

প্রকাশ : ০৯ জুলাই ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

জাতীয় ও স্থানীয় সরকারের বিভিন্ন নির্বাচনে দলের বিদ্রোহী প্রার্থীদের বিরুদ্ধে নমনীয়তা থেকে সরে এসে এবার কঠোর সাংগঠনিক সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ। এ লক্ষ্যে দলের বিদ্রোহীদের বহিষ্কার কিংবা তৃণমূলে দলীয় গুরুত্বপূর্ণ পদে না রাখাসহ কয়েকটি বিষয়ে সিদ্ধান্ত কার্যকর হতে পারে। আগামী শুক্রবার দলের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভা বসছে। ওইদিন বিকালে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে তার সরকারি বাসভবন গণভবনে এ বৈঠক হবে। সূত্র জানায়, আগামী জাতীয় সম্মেলন কেন্দ্র করে তৃণমূলের মেয়াদোত্তীর্ণ উপজেলা/ পৌরসভা, ইউনিয়ন/ওয়ার্ড কমিটিগুলোর কাউন্সিল সম্পন্ন করার লক্ষ্যে বিশেষ দিকনির্দেশনা দেবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। দলীয় সভাপতির দিকনির্দেশনা অনুসারে মধ্য জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সংগঠনের তৃণমূলককে ঢেলে সাজাতে আটঘাট বেঁধে মাঠে সক্রিয় হবেন দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা।

এছাড়াও জাতীয় সম্মেলনকে সামনে রেখে সম্মেলন প্রস্তুত কমিটি ও বিভিন্ন উপকমিটি গঠনেও সিদ্ধান্ত গৃহীত হতে পারে বৈঠকে।

দলের নেতারা জানান, আওয়ামী লীগ সভাপতি বিভিন্ন নির্বাচনে দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গকারী বিদ্রোহী প্রার্থীদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে দলের সাধারণ সম্পাদককে ইঙ্গিত দিয়েছেন।

এদিকে আগামী জাতীয় সম্মেলন ও তৃণমূলকে সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক নেতারা নিজ নিজ বিভাগে তৃণমূলের বর্ধিত সভার সফরসূচিও ও সময়সূচি অবহিত করেন।

দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক জানান, ২১ জুলাই বেলা ১১টায় রংপুরের তারাগঞ্জ উপজলা, বিকাল ৫টায় রংপুর মহানগর, ২২ জুলাই গঙ্গাচড়া, ২৬ জুলাই বদরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের যৌথ ও বর্ধিত সভা হবে। এছাড়াও ঢাকা বিভাগের কয়েকটি জেলায় বর্ধিত সভা করার দিনক্ষণ জানান আরেক যুগ্ম সাধারণ ডা. দীপু মনি ও সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

 

"