বাজেট প্রতিক্রিয়া

আওয়ামী লীগের আনন্দ মিছিল

প্রকাশ : ১৪ জুন ২০১৯, ০০:০০

জিয়াউদ্দিন রাজু

২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটকে ‘জনকল্যাণ ও উন্নয়নমুখী’ আখ্যা দিয়ে একে স্বাগত জানিয়েছে আওয়ামী লীগ। বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে রাজধানীতে আনন্দ মিছিল ও সমাবেশ করেছে আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনগুলো। যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, শ্রমিক লীগের নেতাকর্মীরা রাজধানীর বিভিন্ন ওয়ার্ডে পৃথক পৃথক আনন্দ মিছিল করেছেন। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখার বাজেট বলে অভিহিত করেন দলটির নেতারা। জাতীয় সংসদে বাজেট পেশের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় সরকারি দলটির শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা বলেন, এ সরকারের শাসনামলে দেশের অভূতপূর্ব উন্নয়ন হচ্ছে। অর্থনীতির বিভিন্ন সূচকে দেশের অগ্রগতি এসেছে। আওয়ামী লীগের সরকারের টানা তৃতীয় মেয়াদের প্রথম বাজেটে এ উন্নয়ন ধারা বজায় রাখা হয়েছে। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে প্রস্তাবিত বাজেট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। গণমুখী আখ্যা দিয়ে এই বাজেট পেশ করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালকে ধন্যবাদ জানান তারা।

বাজেটের পক্ষে মিছিল-সমাবেশ : বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে রাজধানীতে আনন্দ মিছিল করে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনগুলো। রাজধানীর ২৩ বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আনন্দ মিছিল ও সমাবেশ করেছে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ। এতে বক্তব্য দেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শাহে আলম মুরাদ। বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে ২৩ বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউস্থ দলীয় কার্যালয়ের সামনে মিছিল বের করে ঢাকা মহানগর দক্ষিন যুবলীগ। এ সময় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ যে এগিয়ে চলেছে, এটাই তার অন্যতম প্রমাণ। আমরা এ বাজেটকে স্বাগত জানাই। অন্যদিকে বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে বিকালে ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনের সামনে থেকে আনন্দ মিছিল করে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। এ ছাড়া স্বাগত জানিয়ে রাজধানীজুড়ে আনন্দ মিছিল ও মিষ্টি বিতরণ করেনে স্থানীয় আওয়ামী লীগ এবং এর অঙ্গসংগঠনগুলো।

এদিকে ২০১৯-২০ সালের নতুন এই বাজেটকে সর্বস্তরে জনকল্যাণমুখী বলে আখ্যা দিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক। তিনি বলেন, মূলত বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারে দেশের জনগণকে যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে, তা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে এই বাজেট প্রকাশ করা হয়েছে। নতুন এ বাজেট বাংলাদশকে উন্নয়নশীল দেশের শিখরে নিয়ে যাবে। এতে করে দেশে কৃষক থেকে সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের উপকৃত হবে।

জাহাঙ্গীর কবির নানক আরো বলেন, আগামী জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে এই জনবান্ধব বাজেট করা হয়েছে। দেশের উন্নয়নের কথা বিবেচনা করেই এই সাহসী বাজেট দেওয়া হয়েছে, যার অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ধরা হয়েছে ৮ দশমিক ২ শতাংশ।

মেহনতি মানুষের বাজেট অভিহিত করে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, ‘এ বাজেট গণমানুষের। স্বাস্থ্য, শিক্ষা, কৃষিসহ সমাজের সব উন্নয়নমুখী কর্মকান্ডের জন্যই এ বাজেট।

নতুন বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও নৌ-প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে সর্ববৃহৎ বাজেট দিয়েছে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকার। এতে জনগণের কল্যাণ ও দেশের অগ্রগতি নিহিত রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এটি বাস্তবায়নের মাধ্যমে উন্নয়ন ও অগ্রগতির ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে।

 

"