বিতর্কিতদের বাদ দেওয়ার নির্দেশ

প্রকাশ : ১৬ মে ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে পদপ্রাপ্ত ও পদবঞ্চিতদের বিভেদ-মারামারির ঘটনায় নারীনেত্রীসহ অন্তত ১৫ জন আহত হন। বিভেদ নিরসনে পদবঞ্চিতরা সরাসরি তাদের অভিভাবক শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। তাই সদ্য ঘোষিত ৩০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে বিতর্কিতদের বাদ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছাত্রলীগের অফিশিয়াল ফেসবুকে জানানো হয়েছে, ‘প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, আমি তো আমদানিকৃত ছাত্রলীগ চাইনি, আমি চেয়েছি ত্যাগী ও পরীক্ষিত ছাত্রলীগ।’ গতকাল বুধবার দুপুরে ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন এবং সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীকে গণভবনে ডেকে সংগঠনের অভিভাবক হিসেবে শেখ হাসিনা এ নির্দেশ দিয়েছেন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন।

রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন বলেন, নেত্রী (শেখ হাসিনা) আমাদের ডেকেছিলেন। দেখা করার পর পূর্ণাঙ্গ কমিটির সবার বিষয়ে গোয়েন্দা প্রতিবেদনের একটি তালিকা দিয়েছেন। এর মধ্যে যাদের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিকভাবে তদন্ত করে প্রমাণ পাওয়া সাপেক্ষে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন। দ্রুততম সময়ের মধ্যেই বিতর্কিতদের পদ বিলুপ্ত করে সেই পদে ত্যাগী ও যোগ্য নেতাদের পদ দেওয়ার বিষয়েও নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শোভন বলেন, ছাত্রলীগের অভিভাবক হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশই চূড়ান্ত। প্রধানমন্ত্রী যে দায়িত্ব দিয়েছেন তা অক্ষরে অক্ষরে পালন করে ছাত্রলীগকে বিতর্কমুক্ত করা হবে বলেও জানান তিনি। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার সময় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, উপদফতর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী বিপ্লব বড়ুয়া এবং কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য এস এম কামাল হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

 

"