সেন্টমার্টিনে হচ্ছে বিজিবির পরিপূর্ণ বর্ডার আউটপোস্ট

প্রকাশ : ০৯ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০

কক্সবাজার প্রতিনিধি

দেশের সর্ব দক্ষিণের উপজেলা টেকনাফের প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিনে ভারী অস্ত্রসহ বিজিবি মোতায়েনের পর সেখানে পূর্ণাঙ্গ একটি পরিপূর্ণ বর্ডার আউটপোস্ট (বিওপি) গঠন করা হচ্ছে। সে লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় অস্ত্র এবং সরঞ্জামও পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি ক্যাম্পটির নিরাপত্তায় যাবতীয় প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন টেকনাফ-২ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল সরকার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান। তিনি বলেন, দেশের সর্ব দক্ষিণে মূল ভূখন্ড থেকে বিচ্ছিন্ন একটি দ্বীপ সেন্টমার্টিন। যে দ্বীপে প্রতি বছর হাজার হাজার পর্যটক ভ্রমণে যান। তাই এই দ্বীপটির নিরাপত্তা দরকার। এছাড়াও সীমান্ত সুরক্ষা, মাদক চোরাচালান প্রতিরোধ, রোহিঙ্গাদের সাগর পথে অবৈধভাবে মালয়েশিয়া যাত্রা বন্ধ করাসহ সবকিছু বিবেচনা করে সরকার সেন্টমার্টিনে বিওপি গঠন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এদিকে ক্যাম্পের জন্য ভারী অস্ত্র সরবরাহ করার বিষয়টি নিশ্চিত করলেও কী পরিমাণ বিজিবি সদস্য সেখানে অবস্থান করবেন সেটা জানাননি তিনি। তবে বিজিবির পাশাপাশি দ্বীপে কোস্টগার্ড ও নৌবাহিনীর সদস্যরাও দায়িত্ব পালন করবেন বলেও জানান তিনি।

সেন্টমার্টিন দ্বীপটি বাংলাদেশের সর্ব দক্ষিণের উপজেলা টেকনাফ থেকে প্রায় ৯ কিলোমিটার দক্ষিণে এবং মিয়ানমার উপকূল থেকে আট কিলোমিটার পশ্চিমে অবস্থিত। ১৭ বর্গকিলোমিটার আয়তনের এ দ্বীপে বর্তমানে সাড়ে ৮ হাজার মানুষ বসবাস করেন। এ দ্বীপটিতে ১৯৯৭ সাল পর্যন্ত তৎকালীন বিডিআর (বাংলাদেশ রাইফেলস) দায়িত্ব পালন করলেও পরবর্তী সময়ে সেখান থেকে তাদের তুলে নেওয়া হয়। প্রায় ২১ বছর পর সেখানে আবারও বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। গত রোববার থেকে সেন্টমার্টিনে ভারী অস্ত্রসহ বিজিবি সদস্য মোতায়েনের বিষয়টি জানান বিজিবি সদর দফতরের জনসংযোগ কর্মকর্তা মুহম্মদ মোহসিন রেজা।

"