এ বিষয়টি রাজনৈতিক

খন্দকার মাহবুব

প্রকাশ : ০৮ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০

আদালত প্রতিবেদক

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তি পাওয়ার বিষয়টি ‘রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের বিষয়’ বলে মন্তব্য করেছেন তার আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন। গতকাল রোববার কুমিল্লার হত্যা মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন বহালের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে খন্দকার মাহবুব হোসেন এ মন্তব্য করেন। খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, ‘আমি বারবার বলেছি, প্যারোলের বিষয়টি রাজনৈতিক বিষয়। এখানে ম্যাডাম খালেদা জিয়া প্যারোলে যাবেন কি না এবং সরকার প্যারোল দেবেন কি না, এটা রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত। আমরা আইনজীবী হিসেবে বলতে পারি চিকিৎসার জন্য প্যারোলে যায়।’

প্যারোলের বিভিন্ন উদাহরণ তুলে ধরে বলেন, দেশে, ভারতে, পাকিস্তানে প্যারোলে যাওয়ার নজির আছে। রাজনৈতিক অঙ্গনে প্যারোলে যাওয়া প্রায়ই দেখা যায়। আমরা চাই তাকে আইনগতভাবে মুক্তি দেওয়া।

এ সময় এক প্রশ্নের জবাবে খালেদা জিয়ার অপর আইনজীবী জয়নুল আবেদীন বলেন, আমরা প্যারোলের আবেদন করিনি।

জামিন বহালের বিষয়ে খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, সরকারের আবেদন ডিসমিসড করে জামিন বহাল রেখেছেন। সরকারের বাধার কারণে আইনি প্রক্রিয়ায় জামিন কঠিন হবে। এখনো তার দুটি মামলা আছে। এগুলো পেন্ডিং আছে। এরই মধ্যে কোনো মামলা না দিলে ওই দুটি (জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও চ্যারিটেবল ট্রাস্ট) মামলায় জামিন পেলে তিনি জেল থেকে বের হবেন।

উল্লেখ্য, দুর্নীতির দুই মামলায় ১৭ বছর দ-িত হয়ে গত বছরের ৮ এপ্রিল থেকে পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে কারাবন্দি আছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া। কারাবন্দি খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ বলে বিএনপির পক্ষ থেকে দাবি করা হচ্ছে। তারা খালেদা জিয়াকে বিএসএমএমইউয়ে চিকিৎসা দেওয়ার বিষয়ে আগ্রহী নয়। বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসার দাবি জানিয়ে আসছে বিএনপি। তবে সরকার তাকে বিএসএমএমইউতে চিকিৎসা দেওয়ার বিষয়ে বারবার বলে আসছে।

গত বছরের ৬ অক্টোবর চিকিৎসকদের পরামর্শে বিএসএমএমইউ হাসপাতালে নেওয়া হয় সাবেক এ প্রধানমন্ত্রীকে। ৮ নভেম্বর তাকে কারাগারে ফিরিয়ে নেওয়া হয়। তবে বিএনপি অভিযোগ করে আসছে তাকে চিকিৎসা শেষ না করেই ফিরিয়ে নেওয়া হয়। সর্বশেষ গত ১ এপ্রিল খালেদা জিয়াকে আবার বিএসএমএমইউয়ে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করানো হয়। এখনো তিনি সেখানেই আছেন।

"