খালেদা বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে যাচ্ছেন না

কারা কর্তৃপক্ষ

প্রকাশ : ১১ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ী কারাবন্দি খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে নেওয়ার প্রস্তুতি নেওয়া হলেও তিনি যেতে রাজি হননি বলে জানিয়েছে কারা কর্তৃপক্ষ। ঢাকার পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুবুল ইসলাম গতকাল রোববার বেলা পৌনে ১২টায় বলেন, উনি ‘না’ করে দিয়েছেন, উনি যাবেন না। উনি চান কোনো বিশেষায়িত হাসপাতালে তার চিকিৎসা হোক।

জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট ও জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ১৭ বছরের দ- নিয়ে ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে নাজিমউদ্দিন রোডের পরিত্যক্ত এই কারাগারে বন্দি রয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। সেখানে তিনিই একমাত্র বন্দি। মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ী খালেদা জিয়াকে গত বছরের ৭ অক্টোবর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়েছিল। সে সময় প্রায় এক মাস চিকিৎসা শেষে আবার তাকে কারাগারে ফিরিয়ে নেওয়া হয়।

বিএনপি নেত্রীর চিকিৎসায় আদালতের নির্দেশে গঠিত মেডিকেল বোর্ডে দুই সদস্যকে নিয়ে গতকাল সকাল পৌনে ১০টার দিকে ছয়তলায় খালেদা জিয়ার জন্য প্রস্তুত করা কেবিন ঘুরে যান হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহ আল হারুন। খালেদা জিয়াকে কখন কারাগার থেকে আনা হবে জানতে চাইলে সে সময় তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রস্তুতি আছে তবে আমাকে সময়টা এখনো জানানো হয়নি।’

খালেদাকে হাসপাতালে স্থানান্তরের প্রস্তুতির খবরে কারাগারের বাইরে ও বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের সামনে ভিড় করেন সংবাদ কর্মীরা।

বিএনপি চেয়ারপারসন তাহলে কেন হাসপাতালে যেতে চাচ্ছেন না জানতে চাইলে জেলার মাহবুবুল ইসলাম বলেন, ‘উনি অপারগতা প্রকাশ করেছেন। এক্ষেত্রে আমাদের তো করার কিছু নেই। তবে কারাগারের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেছেন, ‘বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের হাসপাতাল বিএনপি চেয়ারপারসনের পছন্দ নয়। উনি চান, উনাকে বিশেষায়িত কোনো হাসপাতালে নেওয়া হোক।’

নিজস্ব প্রতিবেদক

মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ী কারাবন্দি খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে নেওয়ার প্রস্তুতি নেওয়া হলেও তিনি যেতে রাজি হননি বলে জানিয়েছে কারা কর্তৃপক্ষ। ঢাকার পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুবুল ইসলাম গতকাল রোববার বেলা পৌনে ১২টায় বলেন, উনি ‘না’ করে দিয়েছেন, উনি যাবেন না। উনি চান কোনো বিশেষায়িত হাসপাতালে তার চিকিৎসা হোক।

জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট ও জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ১৭ বছরের দ- নিয়ে ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে নাজিমউদ্দিন রোডের পরিত্যক্ত এই কারাগারে বন্দি রয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। সেখানে তিনিই একমাত্র বন্দি। মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ী খালেদা জিয়াকে গত বছরের ৭ অক্টোবর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়েছিল। সে সময় প্রায় এক মাস চিকিৎসা শেষে আবার তাকে কারাগারে ফিরিয়ে নেওয়া হয়।

বিএনপি নেত্রীর চিকিৎসায় আদালতের নির্দেশে গঠিত মেডিকেল বোর্ডে দুই সদস্যকে নিয়ে গতকাল সকাল পৌনে ১০টার দিকে ছয়তলায় খালেদা জিয়ার জন্য প্রস্তুত করা কেবিন ঘুরে যান হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহ আল হারুন। খালেদা জিয়াকে কখন কারাগার থেকে আনা হবে জানতে চাইলে সে সময় তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রস্তুতি আছে তবে আমাকে সময়টা এখনো জানানো হয়নি।’

খালেদাকে হাসপাতালে স্থানান্তরের প্রস্তুতির খবরে কারাগারের বাইরে ও বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের সামনে ভিড় করেন সংবাদ কর্মীরা।

বিএনপি চেয়ারপারসন তাহলে কেন হাসপাতালে যেতে চাচ্ছেন না জানতে চাইলে জেলার মাহবুবুল ইসলাম বলেন, ‘উনি অপারগতা প্রকাশ করেছেন। এক্ষেত্রে আমাদের তো করার কিছু নেই। তবে কারাগারের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেছেন, ‘বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের হাসপাতাল বিএনপি চেয়ারপারসনের পছন্দ নয়। উনি চান, উনাকে বিশেষায়িত কোনো হাসপাতালে নেওয়া হোক।’

 

"