নামের ভুলে ৫ বছর ভাতা পান না মুক্তিযোদ্ধা

প্রকাশ : ১০ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে জাতীয় পরিচয়পত্রে আসল নামের পরিবর্তে অন্য নাম ছাপা হওয়ায় পাঁচ বছর ধরে ভাতা পাচ্ছেন না মুক্তিযোদ্ধা ছাহেন উদ্দিন মোল্লা (৭৮)। তিনি পরিবার-পরিজন নিয়ে বর্তমানে অসহায় জীনযাপন করছেন। ১৯৭১ সালে ছাহেন উদ্দিন গোপালগঞ্জ জেলার ৯ নম্বর সেক্টরে যুদ্ধ করেন। যুদ্ধ শেষে পৈতৃক ভিটা গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার বড় পারুলিয়া গ্রামে বসবাস করতে থাকেন। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর মুক্তিযুদ্ধের মুক্তিবার্তার (সবুজ) ৫৫নং ক্রমিক নং : ০৯০৯০৪১৫৯৫ তালিকায় তার নাম ছাহেন উদ্দিন মোল্লা, পিতা মৃত রাহেন উদ্দীন মোল্লা লিপিবদ্ধ হয়। কিন্তু মুক্তিবার্তার সবুজ তালিকা প্রণয়নের পর তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল উপজেলার উত্তর সাঁকোপাড়ায় সরকারি খাস জায়গায় বসবাস করতে থাকেন।

২০১৪ সালে পরবর্তী হালনাগাদ (লাল) তালিকার আগেই তার নাম ছাহেন উদ্দিন মোল্লা না হয়ে নাচোলে জাতীয় পরিচয়পত্রে ‘মো. শাহীন মোল্লা’ লিপিবদ্ধ হয়। তাই ২০১৪ সালে প্রণীত সরকারি গেজেটের তালিকায় ছাহেন উদ্দিন মোল্লার নাম নেই।

এ বিষয়ে গোপালগঞ্জ জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ে আবেদন করে দীর্ঘদিনেও এর প্রতিকার পাননি তিনি। বর্তমানে তার আয়ের কোনো উৎস না থাকায় মাত্র দেড় শতাংশ সরকারি খাসজমিতে কুঁড়েঘরে স্ত্রী, ছেলেমেয়ে ও নাতি-নাতনিদের নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন।

ছাহেন উদ্দিন মোল্লা বলেন, ২০০৯ সালের জুলাই মাস থেকে মুক্তিযোদ্ধা ভাতা পেয়ে আসছিলাম। কিন্তু নাম পরিবর্তন হয়ে যাওয়ায় ২০১৪ সালের ৩০ জুন থেকে মুক্তিযোদ্ধা ভাতা থেকে বঞ্চিত রয়েছি। মুক্তিযোদ্ধা ছাহেন উদ্দিন মোল্লা স্ত্রী লাল বানু, ৩ ছেলে ও বিবাহযোগ্য এক মেয়েকে নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। শেষ বয়সে এসে সর্বশেষ তালিকায় তার নাম ছাহেন উদ্দিন মোল্লøা অন্তর্ভুক্ত করে বকেয়া ভাতা প্রদানসহ সর্বশেষ গেজেটে নাম অন্তর্ভুক্তির জন্য সংশ্লিষ্টদের কাছে আবেদন জানিয়েছেন তিনি।

 

"