ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন

শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়অধ্যক্ষ মাহফুজাকে

স্বামীর মামলায় আসামি দুই গৃহকর্মী

প্রকাশ : ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

ইডেন কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ মাহফুজা চৌধুরী পারভীনকে শ্বাসরোধে খুন করা হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ বিষয়টি জানতে পেরেছে। পরে ময়নাতদন্তেও বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। গতকাল সোমবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে মাহফুজা চৌধুরীর ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করা হয়। ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক ঢামেকের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. সোহেল মাহমুদ জানান, শ্বাসরোধে মাহফুজা চৌধুরীকে খুন করা হয়েছে। দুই বা ততোধিক ব্যক্তি এই হত্যাকান্ডে অংশ নিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এদিকে মাহফুজা চৌধুরী পারভীন হত্যার ঘটনায় নিউমার্কেট থানায় মামলা হয়েছে। মামলায় বাসার দুই গৃহকর্মীসহ অজ্ঞাতপরিচয় কয়েকজনকে আসামি করা হয়েছে। নিহতের স্বামী ছাত্রলীগের সাবেক নেতা ইসমত কাদের গামা বাদী হয়ে সোমবার সকালে মামলাটি করেন বলে ডিএমপির রমনা বিভাগের উপকমিশনার মারুফ হোসেন সরদার জানিয়েছেন।

পুলিশের ধারণা বাড়ির দুই গৃহকর্মী এই হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে। ঘটনার পর থেকে তাদের খুঁঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

পুলিশের রমনা বিভাগের উপকমিশনার মারুফ হোসেন সরদার জানান, প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, গৃহকর্মী রেশমা ও স্বপ্না এই হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে। হত্যার পর ওই বাড়ি থেকে স্বর্ণালঙ্কার ও টাকা-পয়সা লুট করে নিয়ে গেছে তারা। বাড়িটির নিচতলায় সিসি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা গেছে, বিকেল ৫টা ৬ মিনিটে দুই গৃহকর্মী লিফট থেকে নেমে বেরিয়ে যাচ্ছে।

প্রসঙ্গত, গত রোববার রাতে এলিফ্যান্ট রোডে সুকন্যা টাওয়ারে নিজের ফ্ল্যাট থেকে মাহফুজার লাশ উদ্ধারের পর থেকে দুই গৃহকর্মী রেশমা ও স্বপ্না পলাতক।

পুলিশ কর্মকর্তা মারুফ বলেন, রুনু নামে বাড়িতে আরেকজন গৃহকর্মী ছিল। তাকেও সন্দেহ করা হচ্ছে। তবে মামলায় তাকে আসামি করা হয়নি। রেশমা ও স্বপ্নাকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে। ওই বাড়ি থেকে কি কি খোয়া গেছে, তা এখনো জানা যায়নি বলে জানান উপকমিশনার মারুফ।

মাহফুজার স্বামী কাদের গামা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ভাইস চেয়ারম্যান। তিনি সত্তরের দশকের প্রথমদিকে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

"