সিটি নির্বাচন

প্রতীক পেয়েই প্রচারে প্রার্থীরা

প্রকাশ : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে (ডিএনসিসি) মেয়র পদে উপনির্বাচনে প্রতীক পেলেন প্রতিদ্বন্দ্বী পাঁচ প্রার্থী। সেই সঙ্গে উত্তর ও দক্ষিণের সম্প্রসারিত ৩৬টি সাধারণ ও ১২টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদের প্রার্থীদেরও প্রতীক দেওয়া হয়েছে। রোববার সকালে ঢাকা উত্তর সিটির রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল কাসেম তার এলাকার প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেন। আর দক্ষিণের সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদ প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেন রিটার্নিং রকিব উদ্দিন মন্ডল। এদিকে প্রতীক পেয়েই প্রচার-প্রচারণা শুরু করেছেন প্রার্থীরা। ২৮ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন হতে যাওয়া এই দুই সিটিতে ভোটের ৩২ ঘণ্টা আগে প্রচার প্রচারণা বন্ধ করতে হবে। অর্থাৎ ২৬ ফেব্রুয়ারি রাত ১২টা নাগাদ সবাই প্রচার চালাতে পারবেন।

গতকাল রোববার ঢাকা উত্তরে আওয়ামী লীগের আতিকুল ইসলাম নৌকা, জাতীয় পার্টির শাফিন আহমেদ লাঙ্গল, এনপিপির আনিসুর রহমান দেওয়ান আম, স্বতন্ত্র আবদুর রহিম টেবিল ঘড়ি, পিডিপির শাহীন খান বাঘ প্রতীক পেয়েছেন। এর আগে শনিবার প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিনে ঢাকা উত্তরে একজন মেয়র প্রার্থী এবং ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটির সম্প্রসারিত ওয়ার্ডগুলোতে নির্বাচন থেকে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নেন মোট ৬৮ জন প্রার্থী।

এদিকে ঢাকা উত্তর সিটির ৯ ও ২০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মারা যাওয়ায় এ দুটিতে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। ৯ নম্বর ওয়ার্ডে মুজিব সরোয়ার মাসুম বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় কাউন্সিলর নির্বাচিত হওয়ায় এ ওয়ার্ডে ভোটের প্রয়োজন হবে না। উত্তর দক্ষিণে সাধারণ ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডে আড়াই শতাধিক প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রয়েছেন।

ডিএনসিসির রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল কাসেম বলেন, প্রতীক বরাদ্দ শেষে সব প্রার্থী নির্বাচনের আচরণবিধি মেনেই প্রচারে অংশ নিতে পারবেন। ২৬ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত প্রচার করা যাবে।

"