বিএনপি-ঐক্যফ্রন্ট ভবিষ্যতেও সফল হবে না : কাদের

প্রকাশ : ১০ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি

বিএনপি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে উদ্দেশ করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, এখন তারা নির্বাচনে পরাজিত। আন্দোলনে ব্যর্থ, নির্বাচনেও ব্যর্থ। তারা ভবিষ্যতেও সফল হবে না। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটে ক্যামেলিয়া ফেরিতে যাত্রার আগে এসব কথা বলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এনা পরিবহনের শীতাতপ-নিয়ন্ত্রিত তিনটি বাসে মন্ত্রিপরিষদের সদস্যরা তিন নম্বর ফেরিঘাটে আসেন। এ সময় আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা ফুল দিয়ে নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদের বরণ করেন। সকাল ৯টা ৪০ মিনিটের দিকে ফেরিটি মন্ত্রিপরিষদের সদস্যদের নিয়ে কাঁঠালবাড়ী ঘাটের উদ্দেশে রওনা করে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, যারা আন্দোলনে পরাজিত, নির্বাচনেও পরাজিত, তাদের নতুন করে কিছু করার আছে বলে কেউ বিশ্বাস করবে বলে মনে হয় না। বাংলাদেশের জনগণ এটা বিশ্বাস করে না, তারাও (আওয়ামী লীগ) করেন না। তারা (বিএনপি-ঐক্যফ্রন্ট) আন্দোলনে ব্যর্থ হয়েছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, তারা গত দশ বছরে ১০ মিনিটও আন্দোলন করতে পারেনি। তারা আবার এখন কী করবে?’ বিএনপি-ঐক্যফ্রন্টের নির্বাচিত সদস্যরা শপথ নেননি।

এদিকে, গত সোমবার নতুন মন্ত্রিসভা শপথ নিয়েছে। বিদেশিরা আওয়ামী লীগ সরকারকে অভিনন্দন জানাচ্ছে। এই অবস্থায় ভোট জালিয়াতি, কারচুপিসহ নানা অভিযোগ এনে ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

ঐক্যফ্রন্টের এই আইনি তৎপরতা নিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, তারা যদি আইনি পথে যায়, তাহলে আমরাও আইনি লড়াই করব। যদি রাজনৈতিক আন্দোলনে যায়, তাহলে রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করা হবে। তারা যদি সহিংসতা ও নাশকতার পথে যায়, তাহলে পরিস্থিতি মোকাবিলায় জনগণকে সঙ্গে নিয়ে সমীচীন জবাব দেওয়া হবে।

নির্বাচন বাতিলের দাবিতে ঐক্যফ্রন্টের কর্মসূচি ঘোষণার বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, এটা বিরোধী দলের কর্মসূচি, এগুলো তাদের নিজস্ব ব্যাপার। নির্বাচন নিয়ে তারা আইনগতভাবে যেকোনো ধরনের কর্মসূচি দিতে পারে। কিছু বলার নেই। আন্দোলন যদি সহিংসতার পথে যায়, তাহলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ফেরি দিয়ে যাওয়ার পথে নির্মাণাধীন পদ্মা সেতুর কাজের অগ্রগতি দেখে উচ্ছ্বসিত হন মন্ত্রিপরিষদের সদস্যরা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানা, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলমসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা। ফেরিতে উঠে নতুন মন্ত্রিপরিষদের সদস্যরা উপস্থিত সবার উদ্দেশে হাত নেড়ে শুভেচ্ছা জানান।

"