ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক

নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলাসহ ৩ কর্মসূচি ঘোষণা

প্রকাশ : ০৯ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক
ama ami

পুনরায় নির্বাচনের দাবিতে অবিলম্বে জাতীয় সংলাপের উদ্যোগ, নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা ও তা দ্রুত মীমাংসা এবং ক্ষতিগ্রস্ত নেতাকর্মীদের এলাকা সফরের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর বেইলি রোডে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের বাড়িতে জোটের স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। দেড় ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে চলা বৈঠকে নির্বাচন-পরবর্তী কর্মসূচি ও ভোটের ফল নিয়ে মামলা এবং ভোট কারচুপির অভিযোগ কূটনীতিকদের অবহিত করার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

বৈঠক শেষে নতুন কর্মসূচি গণমাধ্যমের সামনে তুলে ধরেন ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র ও বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, জাতীয় সংলাপ, নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা এবং নির্বাচনের সময় যেসব এলাকায় নেতাকর্মীরা বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন সেসব এলাকায় ফ্রন্ট নেতারা সফর ও গণসংযোগ করবেন। এর অংশ হিসেবে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে সিলেটের বালাগঞ্জে যাবেন তারা।

ঐক্যফ্রন্টের লিখিত বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল অবিলম্বে নির্বাচনের কেন্দ্রভিত্তিক ফলের সঠিক অনুলিপি দিতে ব্যবস্থার দাবি জানিয়ে বলেন, ৩০ ডিসেম্বর সংবিধান অনুযায়ী কোনো নির্বাচন হয়নি। বাংলাদেশের জনগণ নির্দলীয় সরকার ও নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের অধীনে পুনরায় একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন চায়।

কর্মসূচি ঘোষণার শুরুতে ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নির্বাচন কমিশন দেশের মালিক জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করেছে। অত্যন্ত ন্যক্কারজনকভাবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের অপব্যবহার করে এবং সেনাবাহিনীর কার্যকর ভূমিকাকে নিষ্ক্রিয় করে নির্বাচনকে প্রহসনে পরিণত করেছে।

তিনি বলেন, বৈঠকে নির্বাচন নিয়ে আলোচনা হয়েছে। জনগণ যে নির্বাচনের মাধ্যমে প্রতিনিধি বাছাই করে নিতে পারত সেই নির্বাচন হয়নি।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি কাদের সিদ্দিকী, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণফোরামের কার্যকরী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু, প্রেসিডিয়াম সদস্য জগলুল হায়দার আফ্রিক, নাগরিক ঐক্যের সমন্বয়কারী শহীদুল্লাহ কায়সার উপস্থিত ছিলেন।

"