এসএসসির ফরম পূরণ

অতিরিক্ত ফি নেওয়া বন্ধে সরকারের হস্তক্ষেপ চায় দুদক

প্রকাশ : ০৯ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

এসএসসি পরীক্ষায় ফরম পূরণে অতিরিক্ত ফি নেওয়ার বিরুদ্ধে সরকারের হস্তক্ষেপ চেয়ে অনুরোধ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গতকাল বৃহস্পতিবার দুদকের মহাপরিচালক (প্রতিরোধ) সারোয়ার মাহমুদ স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ অনুরোধ করা হয়েছে।

দুদক সূত্রে জানা গেছে, দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কতিপয় দুর্নীতিপরায়ণ শিক্ষক সরকার নির্ধারিত ফির অতিরিক্ত ফি আদায় করছে। এ ধরনের অভিযোগ দুদক অভিযোগ কেন্দ্র ১০৬-এ ও ই-মেইলে প্রতিদিন আসছে। এ অনিয়মের বিরুদ্ধে সম্প্রতি কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দুদকের এনফোর্সমেন্ট টিম সরেজমিনে অনুসন্ধান করে সত্যতা পেয়েছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে সরকারকে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য চিঠি দেয় দুদক।

মন্ত্রিপরিষদ সচিবকে দেওয়া চিঠিতে বলা হয়েছে, কোনো কোনো ক্ষেত্রে অতিরিক্ত অর্থের বিনিময়ে দুর্নীতির মাধ্যমে নির্বাচনী পরীক্ষায় অকৃতকার্য পরীক্ষার্থীদেরও ফরম পূরণের সুযোগ সৃষ্টি করে দেওয়া হচ্ছে। এমন অপতৎপরতা সারা দেশে সরকারি-বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর সুনাম ও ভাবমূর্তি নষ্ট করছে, যা সরকার নিয়ন্ত্রণকারী মন্ত্রণালয়/অধিদফতর/দফতর/মাঠ প্রশাসনের কর্মকর্তাদের যথাযথ হস্তক্ষেপের মাধ্যমে অবিলম্বে নিয়ন্ত্রণ করা উচিত।

চিঠির অনুলিপি পাঠানো হয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বোর্ড (ঢাকা/কুমিল্লা/চট্টগ্রাম/রাজশাহী/যশোর/বরিশাল/সিলেট/দিনাজপুর/ বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড/বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড) চেয়ারম্যান, সব জেলা প্রশাসক, দুদক চেয়ারম্যানের একান্ত সচিব, দুদকের কমিশনার তদন্ত/অনুসন্ধানের একান্ত সচিব, দুদক সচিবের একান্ত সচিবকে।

দেশের সব বিদ্যালয়ে এসএসসি পরীক্ষায় ফরম পূরণের সময় আসার আগে থেকেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে হুশিয়ারি দিয়ে আসছিল দুদক। এজন্য তারা বিভিন্ন মাধ্যমে প্রচারণাও চালাচ্ছিল। তবে জনসচেতনতার এই প্রচারণার মধ্যেই দেশের বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ ওঠে। এরপর থেকে আরো নড়েচড়ে বসে দুদক। এরই ধারাবাহিকতায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগকে চিঠি দিল দুর্নীতি দমনে নিয়োজিত প্রতিষ্ঠানটি।

"