তারেকের ফাঁসি চান সেই জজ মিয়া

প্রকাশ : ১১ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার আপিলের রায়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের মৃত্যুদণ্ড কামনা করেছেন মামলার একসময়ের ‘আলোচিত’ আসামি জজ মিয়া। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে আসামি হয়েছিলেন এই জজ মিয়া ওরফে জালাল। পরে মামলা থেকে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। এ মামলায় রায় ঘোষণার পর প্রতিক্রিয়া জানাতে জজ মিয়া বলেন, ‘যদিও আশা করেছিলাম, তারেক রহমানের ফাঁসি হবে। কিন্তু তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এখন রাষ্ট্রপক্ষ হয়তো হাইকোর্টে আপিল করবে। উচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টের রায়ে যেন তারেক রহমানের ফাঁসি হয়, এটাই আমার চাওয়া।’ জজ মিয়া বলেন, ‘এ রায়ে আমি সন্তুষ্ট। ১৪ বছর পর রায় হয়েছে। আমি চাই রায় দ্রুত কার্যকর করা হোক।’

অন্যদিকে বহুল আলোচিত এ মামলার রায়ে খুশি নন গ্রেনেড হামলায় আহত সম্রাট আকবর সবুজ। রায় ঘোষণার পর তাৎক্ষণিক এ প্রতিক্রিয়ায় তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, ‘সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরসহ ১৯ জনের ফাঁসি হলেও রায়ে আমি হতাশ। এই ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারী তারেক জিয়াকে ফাঁসি দিতে হবে। তিনি আরো বলেন, ‘গ্রেনেড হামলার সময় ২৫০টি শরীরে স্পিøন্টার ঢুকেছিল। ১০০টি বের করা হলেও বাকিগুলো এখনো আছে।’

গতকাল বুধবার ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের সমাবেশে গ্রেনেড হামলার মামলায় সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরসহ ১৯ জনের মৃত্যুদ-ের রায় দিয়েছেন বিশেষ ট্রাইব্যুনাল। এ ছাড়া বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ ১৯ জনের যাবজ্জীবনের আদেশ দেওয়া হয়েছে। বাকি ১১ জনের বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেওয়া হয়েছে।

 

"