জিডিপির প্রবৃদ্ধি সোয়া ৮ শতাংশ হতে পারে

প্রকাশ : ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, চলতি অর্থবছরে (২০১৮-১৯) মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি ৮.২৫ শতাংশ হতে পারে। আগামী ৫ বছরে তা ৯ শতাংশে উন্নীত হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে পরিকল্পনামন্ত্রী এ কথা বলেন। শেরে বাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে এই সংবাদ সম্মেলন হয়।

গত অর্থবছরের (২০১৭-১৮) চূড়ান্ত হিসাবে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৮ শতাংশের কাছাকাছি হতে পারে বলে মনে করেন পরিকল্পনামন্ত্রী। সাময়িক হিসাবে ৭.৬৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে বলে কয়েক মাস আগে জানিয়েছিল বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস)। নির্বাচনের বছরে প্রবৃদ্ধি কমতে পারে কি নাÑএমন প্রশ্ন করা হলে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘সব দেশেই নির্বাচন হয়, এটাই স্বাভাবিক। কয়েক দিন আগে সব মন্ত্রণালয়ের সচিবদের সঙ্গে বৈঠক করেছি। তখন সচিবদের বলেছি, নির্বাচন আমি করব, আপনারা নন। এবার নির্বাচনের বছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি যেন কমে না যায়। ইতোমধ্যে আগামী ৬ মাসে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) প্রকল্পের টাকা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের হিসাবে চলে গেছে। টাকার জন্য অর্থ মন্ত্রণালয় বা পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে আসতে হবে না। তাই প্রকল্প বাস্তবায়ন নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না। জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে প্রভাব পড়বে না।’ পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, কয়েক দিন পরই একটি ছোট কেবিনেট হবে। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বেই নির্বাচনকালীন সরকার থাকবে।

সংবাদ সম্মেলনে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘আমি ইভিএম কেনা ও ব্যবহারের বিপক্ষে নই।’ ইভিএমের ব্যবহার ধীরে ধীরে করা উচিত বলে তিনি মনে করেন। ইভিএম কেনার একটি প্রকল্প প্রস্তাব পরিকল্পনা কমিশনে আছে বলে তিনি জানান।

এই প্রকল্প সম্পর্কে পরিকল্পনামন্ত্রী আরো বলেন, কীভাবে ইভিএমের ব্যবহার করা হবে, তা নিয়ে পরিকল্পনা কমিশন থেকে প্রশ্ন করা হয়েছে। এ বিষয়ে সুস্পষ্ট নির্দেশনা থাকা দরকার। এ নিয়ে প্রকল্প বাস্তবায়নকারী মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে সভা করবে পরিকল্পনা কমিশন।

আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, ইভিএম সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী বক্তব্য দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ইভিএম কেউ চাপিয়ে দিতে পারবে না। এটি ধীরে ধীরে ব্যবহার করতে হবে। এজন্য প্রশিক্ষণ দিতে হবে। পরিকল্পনামন্ত্রী আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী এ বিষয়ে নির্দেশনা দেবেন।

সংবাদ সম্মেলনে পরিকল্পনা সচিবসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

"