রেলে প্রযুক্তির হাওয়া

* যাত্রীরা পাচ্ছেন ‘ফ্রি ওয়াইফাই’ * ১৩ স্টেশনে চালু আরো ১২টিতে প্রক্রিয়াধীন এবং ৬ কোচে নতুন উদ্যোগ

প্রকাশ : ০৯ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

গাজী শাহনেওয়াজ

বাংলাদেশ রেলওয়েতে প্রযুক্তির হাওয়া লেগেছে। যাত্রীবান্ধব করতে নিত্যনতুন সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো হচ্ছে। এরই মধ্যে রেলকে ‘লাল-সবুজ’-এর রঙে রঙেছে। এবার যাত্রীদের প্রযুক্তির সঙ্গে সার্বক্ষণিক কানেক্ট রাখতে যোগ করা হলো ‘ফ্রি ওয়াইফাই’ সুবিধা।

বিভিন্ন স্টেশনের সঙ্গে যাত্রী কোচেও এ নেটওয়ার্ক স্থাপন করা হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে দেশজুড়ে বিস্তৃতি সব স্টেশন ও কোচে এর সুবিধা বাড়াতে কাজ করছে বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। খবর সংশ্লিষ্ট সূত্রের।

জানতে চাইলে রেলমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক বলেন, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন দেশের মানুষের কাছে স্বপ্ন নয়; বাস্তব। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে রেল এখন প্রতিযোগিতার দৌড়ে অনেকদূর এগিয়েছে। আরো আধুনিক এবং যাত্রীবান্ধব ও সময়োযোগী করতে রেলস্টেশন ও কোচে ‘ফ্রি ওয়াইফাই’ সুবিধা যোগ করা হয়েছে এবং হচ্ছে। ধাপে ধাপে সর্বত্র এর নেটওয়ার্ক বৃদ্ধি করা হবে। আমরা চাই, রেল হোক দেশের মানুষের জন্য নিরাপদ একমাত্র বিনোদনমূলক ভ্রমণ বাহন। এ কাজটি করতে আমরা সর্বদা চেষ্টা করছি।’ রেলওয়ের কর্মকর্তারা বলেন, দেশে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা, অরাজকতা, হরতাল কিংবা দুর্যোগ ছাড়া আগে রেলে চড়ায় আগ্রহ দেখাত না মানুষ। কারণ বিলম্বে গন্তব্যে পৌঁছানো এবং ৯টার ট্রেন কয়টায় ছাড়বেÑ এ নিশ্চয়তা না থাকা ছিল প্রধান কারণ। সেদিক থেকে অনেকটা এগিয়ে ছিল সড়ক ও নৌপথ। মানুষের নির্বিঘেœ চলাচলের ক্ষেত্রে একমাত্র মাধ্যম এ দুটি পথ।

কারণ অতীতে রেলে সুযোগ-সুবিধা কম থাকার কারণে এ বাহনের বদলে অনেকে সড়ক ও নৌপথকে বেছে নিত। কিন্তু বর্তমান সরকার টানা দুই মেয়াদে ক্ষমতায় এসে রেলকে যাত্রীবান্ধব করে গড়ে তুলতে নানা পদক্ষেপ নেয়। লাল সবুজের পতাকার আদলে রেলকে সাজানো হয়। স্টেশনে যাত্রীদের বসার জায়গা এবং নতুন নতুন রেল বহরে যোগ করে অন্য উচ্চতায় নিয়ে যাওয়া হয় এ রেলকে।

আধুনিক সুযোগ-সুবিধার সঙ্গে এবার রেল যুক্ত হলো ওয়াইফাই নেটওয়ার্কের সঙ্গে। এরই মধ্যে দেশের ১৩টি স্টেশনকে ওয়াইফাই-এর আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকা, ঢাকা বিমানবন্দর, চট্টগ্রাম, ফেনী, কুমিল্লা, সিলেট, ময়মনসিংহ, রাজশাহী, বগুড়া, দিনাজপুর, রংপুর, যশোহর ও খুলনা। এসব স্টেশনে যাত্রীরা ‘ফ্রি ওয়াইফাই’ সেবা পাচ্ছে। আরো ১২টি স্টেশনে এ সুবিধা শিগগিরই যাত্রী পেতে যাচ্ছে। এগুলোর মধ্যে লাকসাম, আখাউড়া, চাঁদপুর, জামালপুর, ভৈরব বাজার, ঈশ্বরদী, পার্বতীপুর, সৈয়দপুর, লালমনিরহাট, নরসিংদী, ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট ও বনানী স্টেশন। এ সুবিধা থাকবে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় স্টেশনেও।

এ ছাড়া বাংলাদেশ রেলওয়ের ছয়টি আন্তনগর ট্রেনে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কোচেও থাকবে ফ্রি ওয়াইফাই সুবিধা। এ তালিকায় সোনার বাংলা, সুবর্ণ, পারাবাত, সুন্দরবন, একতা ও ধূমকেতু রয়েছে। সেলফোন কোম্পানি রবি আজিয়াটার সঙ্গে এ-সংক্রান্ত চুক্তি রয়েছে রেলওয়ের। পরীক্ষামূলকভাবে এসব কোচে ওয়াইফাই চালু করা হলে যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে বন্ধ হয়ে যায়। এখন পুনরায় এ সুবিধা চালু করতে নতুন উদ্যোগ নিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ।

"