রাজনাথ সিং ঢাকায়

বৈঠকে গুরুত্ব পাবে ২ দেশের নিরাপত্তা

প্রকাশ : ১৪ জুলাই ২০১৮, ০০:০০

কূটনৈতিক প্রতিবেদক

ভারত-বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকের জন্য তিন দিনের সরকারি সফরে ঢাকায় এসেছেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। একটি বিশেষ ফ্লাইটে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টায় কুর্মিটোলা বঙ্গবন্ধু বিমানঘাঁটিতে পৌঁছালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল তাকে অভ্যর্থনা জানান। সরকারি সূত্র জানায়, এবারের বৈঠকে গুরুত্ব পাবে দুই দেশের নিরাপত্তা জোরদার ও সীমান্ত অপরাধ দমন এবং বাংলাদেশ-ভারতের জনগণের মধ্যে সৌহার্দ-সম্প্রীতি আরো বাড়ানোর উপায় খোঁজা।

আগামীকাল রোববার ঢাকায় অনুষ্ঠেয় ষষ্ঠ ভারত-বাংলাদেশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে অংশ নেবেন রাজনাথ সিং। তবে আজ শনিবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। ওইদিন রাজশাহী পুলিশ একাডেমিতে যাবেন তিনি। তার আগে যমুনা ফিউচার পার্কে একটি ভারতীয় ভিসা অ্যাপ্লিকেশন সেন্টার উদ্বোধন করবেন তিনি।

কাল রোববার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আনুষ্ঠানিক বৈঠকের আগে ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধু জাদুঘর পরিদর্শন করবেন রাজনাথ সিং। ঢাকেশ্বরী মন্দিরে প্রার্থনায় অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে তার। এবার ভারত-বাংলাদেশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে নিরাপত্তা, সীমান্ত ব্যবস্থাপনা, অপরাধমূলক কর্মকা- দমনে সহযোগিতা এবং ভ্রমণ-সংক্রান্ত বিষয়গুলো আলোচিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে। দুই দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের সর্বশেষ বৈঠকটি হয়েছিল ২০১৬ সালের জুলাইয়ে নয়াদিল্লিতে।

ওই বৈঠকে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের নানাদিক পর্যালোচনার পাশাপাশি সম্পর্ক আরো জোরদারে করণীয় সম্পর্কে আলোচনা করা হয়। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলছেন, এবার বৈঠকে নিরাপত্তা সহযোগিতা, সীমান্ত ব্যবস্থাপনা, কনসুলার সেবা-সংক্রান্ত বিষয় এবং জাল মুদ্রা, মাদক ও মানব পাচারের মতো অপরাধমূলক কর্মকা- কীভাবে দমন করা যায়; সেসব বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে। কীভাবে দুই দেশের জনগণের মধ্যে যোগাযোগ আরো বাড়ানো যায়, সে বিষয়েও আলোচনা করবেন তারা।

বাংলাদেশি নাগরিকদের জন্য ভিসা প্রক্রিয়া সহজ করতে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে ভারত সরকার। যেমনÑ নির্বিঘেœ ভিসা আবেদন জমা, ই-টোকেনের বাধ্যবাধকতা না থাকা এবং জ্যেষ্ঠ নাগরিক, মুক্তিযোদ্ধা ও ব্যবসায়ীদের জন্য দীর্ঘমেয়াদি ভিসা দিচ্ছে তারা।

দুই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকে সংশোধিত ট্রাভেল এগ্রিমেন্ট ২০১৮ সই হওয়ার কথা রয়েছে। এই চুক্তির আওতায়ই ভিসা প্রক্রিয়া আরো সহজ হবে। ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশন বলেছে, ভারত ও বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের নিয়মিত বৈঠকের ধারাবাহিকতায় রাজনাথ সিংয়ের এ সফর হচ্ছে। রাজশাহীর সারদায় বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিতে বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী ভবনের উদ্বোধন করবেন রাজনাথ সিং ও বাংলাদেশর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

"