গুতেরেসের নিবন্ধ

রোহিঙ্গাদের জন্য সীমান্ত ও হৃদয় খুলে দিয়েছে বাংলাদেশ

প্রকাশ | ১২ জুলাই ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

সীমিত সম্পদের উন্নয়নশীল দেশ হওয়া সত্ত্বেও বাংলাদেশ সরকার জাতিগত নিধনের শিকার রোহিঙ্গাদের জন্য সীমান্ত ও হৃদয় দুই-ই খুলে দিয়েছে। যেখানে বৃহত্তর ও সম্পদশালী দেশগুলো শরণার্থীদের মুখের ওপর দুয়ার বন্ধ করে দিচ্ছে। কথাগুলো জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসের। সম্প্রতি বাংলাদেশ সফর শেষে ফিরে গিয়ে রোহিঙ্গাদের দুর্দশার অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে যুক্তরাষ্ট্রের দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্টে একটি নিবন্ধ লেখেন গুতেরেস। যার চুম্বক অংশ পাঠকদের উদ্দেশে তুলে ধরা হলোÑ

নিবন্ধে জাতিসংঘ মহাসচিব লেখেন, বাংলাদেশের মানুষের মমত্ববোধ ও উদারতা দেখিয়ে দিয়েছে মানবতার সর্বোচ্চ রূপ এবং হাজারো মানুষের জীবন বাঁচিয়েছে। কিন্তু এ সংকটের অবশ্যই বৈশ্বিক সমাধান করতে হবে।

প্রাণ হাতে নিয়ে পালানো মানুষের আশ্রয় দিতে বাংলাদেশের মতো সামনের সারির দেশগুলো যাতে একা হয়ে না যায়, তার জন্য জাতিসংঘের সদস্য রাষ্ট্রগুলো শরণার্থী বিষয়ে একটি বৈশ্বিক চুক্তি চূড়ান্ত করছে। তবে এখনকার জন্য জাতিসংঘ ও অন্যান্য মানবিক সাহায্য সংস্থা পরিস্থিতির উন্নয়নে শরণার্থী ও আশ্রয়দাতা দেশগুলোর সঙ্গে কাজ করছে। কিন্তু দুর্যোগ এড়াতে আরো সম্পদ জরুরি ভিত্তিতে প্রয়োজন। সেই সঙ্গে শরণার্থী সংকটে বৈশ্বিকভাবে দায়িত্ব ভাগ করে নেওয়ার যে নীতি তাকেও আরো গুরুত্ব দিতে হবে। রাতারাতি এ সমস্যার সমাধান হবে না। একইভাবে এ পরিস্থিতি অনির্দিষ্টকালের জন্য চলতে দেওয়াও যায় না।

"