বন্দুকযুদ্ধে নড়াইলে নিহত এক, চারঘাটে একজন গুলিবিদ্ধ

প্রকাশ : ০৮ জুলাই ২০১৮, ০০:০০

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নড়াইলে এক মাদক বিক্রেতা নিহত হয়েছে। এছাড়া রাজশাহীর চারঘাটে পুলিশের গুলিতে আরেক মাদক বিক্রেতা আহত হয়েছেন। প্রতিনিধি ও ব্যুরো অফিসের পাঠানো রিপোর্ট-

নড়াইল : নড়াইলের লস্কারপুর বালুমাঠ এলাকায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে গোলাম মোস্তফা (৪৮) নামে এক মাদক বিক্রেতা নিহত হয়েছেন। গত শুক্রবার রাত ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। মোস্তফা আউড়িয়া ইউনিয়নের চিলগাছা রঘুনাথপুর গ্রামের মৃত আজিজ মোল্যার ছেলে। নড়াইল সদর থানার ওসি আনোয়ার হোসেন জানান, ডিবি ও থানা পুলিশের একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে লস্কারপুর বালুমাঠ এলাকায় অভিযান চালায়। সেখানে উপস্থিত হলে মাদক বিক্রেতা ও সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে গুলি চালায়। উভয় পক্ষের মধ্যে গুলিবিনিময়ের এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়, পুলিশ ঘটনাস্থল তল্লাশি করে একটি পাইপগান, দুই রাউন্ড গুলি, তিনটি গুলির খোসা ও ৫৩ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। সেখানে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক মাদক বিক্রেতাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে। নড়াইল সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। বন্দুকযুদ্ধের সময় থানা পুলিশের এসআই মিন্টু, ডিবি পুলিশের তিন এএসআই আবদুর রহমান, মোস্তফা কামাল ও নাহিদ নেওয়াজ এবং কনস্টেবল ওলিয়ার আহত হয়েছেন।

রাজশাহী : রাজশাহীর চারঘাটে গোয়েন্দা পুলিশের গুলিতে আবদুল মালেক নামের এক মাদক কারবারি আহত হয়েছেন। তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গত শুক্রবার গভীর রাতে চারঘাট উপজেলার মুক্তারপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে ১২০ বোতল ফেনসিডিল ও তিনটি হাসুয়া উদ্ধার করা হয়।

রাজশাহী জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক খালিদ হোসেন বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তারা মুক্তারপুর এলাকায় অভিযানে যান। রাত আড়াইটার দিকে তারা দেখেন, একটি বস্তা নিয়ে কয়েকজন ব্যক্তি রাস্তা দিয়ে যাচ্ছেন। এ সময় পুলিশ তাদের চ্যালেঞ্জ করলে তারা হাসুয়া দিয়ে পুলিশের ওপর হামলা করেন। আত্মরক্ষার্থে পুলিশ গুলি চালায়। এতে আবদুল মালেকের বাম পায়ে গুলি লাগে। তাকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে ও পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। মালেক দীর্ঘদিন ধরে মাদক কারবারের সঙ্গে জড়িত। তার বাড়ি মুক্তারপুর এলাকায়।

পুলিশ কর্মকর্তা খালিদ বলেন, মাদক ব্যবসায়ীদের হাসুয়ার আঘাতে জেলা ডিবি পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শক ইমরান হোসেন ও কনস্টেবল এমদাদ হোসেন আহত হয়েছেন।

"