ঘুষের টাকাসহ সওজ প্রকৌশলী গ্রেফতার

প্রকাশ : ১২ জুন ২০১৮, ০০:০০

বরগুনা প্রতিনিধি

বরগুনা জেলার সড়ক ও জনপথ (সওজ) অধিদফতরের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী শামসুল শাহরিয়ার ভূঁইয়াকে ঘুষের সাড়ে ১৪ লাখ টাকাসহ নিজ দফতর থেকে গ্রেফতার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গতকাল সোমবার বিকেল পৌনে ৩টার দিকে দুদক পটুয়াখালী সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক জাহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে সংস্থাটির সাত সদস্যের দল ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে তাকে গ্রেফতার করে।

জানা গেছে, ৬ কোটি টাকার বিল পাস করতে ১৫ লাখ টাকা ঘুষ লেনদেন হচ্ছেÑ এমন সংবাদের ভিত্তিতে পটুয়াখালী দুর্নীতি দমন কমিশনের জেলা সমন্বিত কার্যালয়ের উপপরিচালক জাহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালিত হয়। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন বরগুনা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইয়ানুর রহমান, দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি রফিক উদ্দিন, সদর থানার এসআই শামীম আহম্মেদ।

জানা যায়, অভিযুক্ত প্রকৌশলী শামসুল শাহরিয়ার ভূঁইয়া তার অফিসের তিন তলার একটি কক্ষে বসবাস করেন এবং টাকাগুলো ওই কক্ষেই রয়েছে। বিষয়টি কমিশনকে জানানো হলে দুদক সব বিধিবিধান অনুসরণ করে দুদক পটুয়াখালী সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক জাহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে একটি বিশেষ টিম গঠন করে। কমিশন ওই বিশেষ টিমকে ওই প্রকৌশলীর অফিস ও বাসা সার্চ করার অনুমতি দেন। সার্বিকভাবে ঢাকা থেকে অভিযান তত্ত্বাবধানের দায়িত্ব দেওয়া হয় দুদকের প্রধান কার্যালয়ের পরিচালক সৈয়দ ইকবালকে।

এ বিষয়ে দুদক পটুয়াখালী সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় মামলা করেছেন। নাম প্রকাশ না করার স্বার্থে একাধিক ব্যক্তি বলেন এ অফিস দুর্নীতির আখড়া। অফিসের কম্পিউটার অপারেটর আল মামুনসহ কয়েকজন কর্মকর্তার নামে কয়েকবার দুর্নীতির সংবাদ ছাপা হলেও ব্যবস্থা নেয়নি কর্তৃপক্ষ।

এ ব্যাপারে বরগুনা থানার ওসি এস এস মাসুদুজ জামান আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

 

 

"