বাংলাদেশের অগ্রযাত্রার গল্প নিয়ে আজ হার্ভার্ডে সম্মেলন

প্রকাশ : ১২ মে ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাদেশের উন্নয়ন নিয়ে হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটিতে আজ শনিবার দিনব্যাপী এক সম্মেলনে মিলিত হচ্ছেন উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তা, গবেষক এবং বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগী ও নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা। দশককাল ধরে বাংলাদেশ কীভাবে উন্নতির সোপান অতিক্রম করে আসছে, কীভাবে ধরে রাখছে প্রবৃদ্ধির উচ্চ হারÑতা নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি এ সম্মেলনে তারা আলো ফেলবেন আগামী দিনের চ্যালেঞ্জগুলোর ওপরও। ফ্লোরিডার ইন্টারন্যাশনাল সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউট (আইএসডিআই), হার্ভার্ড কেনেডি স্কুলের সেন্টার ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট এবং হার্ভার্ড লক্ষ্মী মিত্তাল সাউথ এশিয়া ইনস্টিটিউটের এই যৌথ আয়োজনের শিরোনাম দেওয়া হয়েছে ‘বাংলাদেশ রাইজিং সম্মেলন ২০১৮’।

আয়োজকরা বলছেন, ক্যামব্রিজের হার্ভার্ড লয়েব হাউসে এ সেমিনার হবে বাংলাদেশের উন্নয়ন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে আয়োজিত সবচেয়ে বড় একাডেমিক সম্মেলন। বাংলাদেশের প্রতিনিধিদের পাশাপাশি বিভিন্ন দেশের বিশেষজ্ঞরা দিনব্যাপী এই সম্মেলনে আলোচনা, মতবিনিময় ও বিতর্কে অংশ নেবেন। এক দশক ধরে বাংলাদেশে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির ধারা উচ্চমুখী, তিন বছর ধরে তা ৭ শতাংশের ওপরে রয়েছে, যা নিয়ে অনেক অর্থনীতিবিদ বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। বিশ্বব্যাংকের মাপকাঠিতে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হওয়ার পর এ বছরই বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হওয়ার যোগ্যতা অর্জনের স্বীকৃতি দিয়েছে জাতিসংঘ। বাংলাদেশের উন্নয়নের এই গতির চালিকাশক্তি কী এবং বৈশ্বিক অভিজ্ঞতার আলোকে তা কীভাবে আরো গতিশীল করা যায়, সম্মেলনে তা নিয়ে আলোচনা হবে বলে জানিয়েছে আইএসডিআই।

অর্থনৈতিক অন্তর্ভুক্তকরণ, বিদেশি বিনিয়োগ, বিদ্যুৎ, টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের মতো বিষয়গুলো আলোচিত হবে এ সম্মেলনে।

সম্মেলনের অধিবেশনগুলোয় সামষ্টিক অর্থনীতির প্রতিশ্রুতি ও সংস্কার, সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগ, অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোর সম্ভাবনা, বিদ্যুৎ উৎপাদন গতিশীলতা আনা, বাণিজ্যে নারীর নেতৃত্ব, তথ্যপ্রযুক্তির প্রসার নিয়েও আলোচনা হবে।

সম্মেলনের শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য দেবেন টাফটস ফ্লেচার স্কুলের ইনস্টিটিউট ফর বিজনের ইন দ্য গ্লোবাল কনটেক্সটের উদীয়মান বাজার উদ্যোগবিষয়ক ফেলো নিকোলাস সুলিভান। হার্ভার্ড কেনেডি স্কুলের সেন্টার ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্টের গবেষণা পরিচালক ফ্রাঙ্ক নেফকে উপস্থাপন করবেন উদ্বোধনী অধিবেশনের মূল প্রবন্ধ।

ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স করপোরেশনের ফাইন্যানশিয়াল ইনস্টিটিউশনস গ্রপের মিরা নারায়ণস্বামীর সঞ্চালনায় এ অধিবেশনে আরো অংশ নেবেন বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সাধারণ সম্পাদক জামালুদ্দিন আহমেদ এবং তানজিব আলম অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটসের প্রধান তানজিব-উল-আলম।

বাংলাদেশ কীভাবে ৭ শতাংশের বেশি প্রবৃদ্ধি অর্জন করল এবং কী ধরনের নীতি ভবিষ্যৎ প্রবৃদ্ধি ত্বরান্বিত করবে, বর্তমানে কোনো ধরনের সংস্কারে সরকার মনোনিবেশ করেছেÑসে বিষয়গুলো মসিউর রহমানের কাছ থেকে জানা যাবে এ অধিবেশনে।

এসডিজিবিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ ‘সরাসির বিদেশি বিনিয়োগ’ অধিবেশনে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন। বাংলাদেশে বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী আমিনুল ইসলামের সঙ্গে এ প্যানেল আলোচনায় থাকছেন ব্রুমার্স অ্যান্ড পার্টনার্সের বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী খালিদ কাদির, বারড রক ফান্ডের প্রেসিডেন্ট চার্লস ল্যাসি এবং অনন্ত গ্রুপের ব্যবস্থানা পরিচালক শরিফ জহির। সঞ্চালনায় থাকবেন যাদারা ক্যাপিটাল পার্টনার্সের প্রতিষ্ঠতা আহমেদ জুয়াইতার।

বাংলাদেশে সরাসরি বিদেশি বিনোয়গের সফল ও অসফল জায়গাগুলো, বিদেশি বিনিয়োগ অথবা পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের জন্য সংস্কারের প্রয়োজনীয়তা এবং ভোক্তা পণ্য উৎপাদন খাতে বিদেশি বিনিয়োগের সম্ভাবনার বিষয়ে এ অধিবেশনে আলোচনা হবে। যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত বাংলাদেশিরা কীভাবে বাংলাদেশের উন্নয়নের সঙ্গে সম্পৃক্ত হতে পারে, সে বিষয়েও একটি আলোচনা পর্ব থাকছে এ সম্মেলনে।

এ আয়োজনের পৃষ্ঠপোষকতায় থাকছে সামিট পাওয়ার, জেনারেল ইলেকট্রনিকস, ম্যাক্স গ্রুপ, বসুন্ধরা গ্রুপ, আবদুল মোনেম ইকোনমিক জোন, মেঘনা গ্রুপ, এনার্জিপ্যাক বাংলাদেশ ও হাবিব গ্রুপ।

 

"