মঞ্জুর সংবাদ সম্মেলন

আবারও পুলিশের গণগ্রেফতার ও হয়রানির অভিযোগ

প্রকাশ : ১২ মে ২০১৮, ০০:০০

খুলনা প্রতিনিধি

কেসিসির মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেছেন, খুলনায় পুলিশের গণগ্রেফতার এবং হয়রানির মাধ্যমে সরকারের দানবীয় চেহারা ফুটে উঠেছে। প্রতিদিনই নেতাকর্মীদের সাঁড়াশি অভিযান চালানো হচ্ছে। বাড়িতে বাড়িতে তল্লাশির নামে আতঙ্ক সৃষ্টি করা হচ্ছে। পুলিশ ও আওয়ামী লীগ একই সুরে কথা বলছে। নির্বাচন প্রভাবিত করতে শেখ হাসিনার পরিবারের লোক নগরীর একটি অভিজাত হোটেলে বসে নির্বাচন প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে। এজন্য তিনি সব আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে খুলনায় ভোট পর্যবেক্ষণ করতে আসার আহ্বান জানান। গতকাল শুক্রবার সকালে নগরীর মিয়াপাড়ায় নিজ বাসভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে নজরুল ইসলাম মঞ্জু এসব কথা বলেন। নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেন, ‘যখন আমার ভোট প্রার্থনা করার কথা, তখন আমি আবারও সংবাদ সম্মেলন করছি। কারণ পুলিশ আবারও বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করছে।’ তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের মিছিল বড় হচ্ছে, জমায়েত বড় হচ্ছে। এটা সরকারের মাথাব্যথার কারণ। এত নির্যাতন সত্ত্বেও বিএনপির কাছে মানুষ যাচ্ছে, রাস্তায় নামছেÑ এটা দেখে আবারও নির্যাতনের মাত্রা বাড়িয়েছে। যেখানেই নির্বাচনী গণসংযোগ করি, সেখানেই পুলিশ হাজির হয়ে যায়। নাম নোট করে ছবি তোলে নেতাকর্মীদের। আমি নগরীর যে প্রান্তেই যাই গোয়েন্দারা অনুসরণ করে।’

তিনি বলেন, ‘গ্রেফতারকৃত বিএনপি নেতাকর্মীদের নামে মাদক ও ভূমিদস্যুতার অভিযোগ নেই। আরো ১৭ নেতাকর্মী গ্রেফতার হয়েছে এবং ৫ শতাধিক বাড়িতে অভিযান চালানো হয়েছে। এসব করেও শেষ রক্ষা হবে না। আওয়ামী লীগ, পুলিশ ও নির্বাচন কমিশন পরাজিত হবে। বিএনপি ও খুলনার জনগণের বিজয় হবে।’

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির কেন্দ্রীয় সহপ্রচার সম্পাদক কৃষিবিদ শামীমুর রহমান শামীম, বিজেপির মহানগর সভাপতি অ্যাডভোকেট লতিফুর রহমান লাবু, জামায়াতের মহানগর শাখার সহকারী সেক্রেটারি অ্যাডভোকেট শাহ আলম, নগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ফকরুল আলম, বিজেপির নগর সাধারণ সম্পাদক সিরাজউদ্দিন সেন্টুসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

 

"