বেঁচে আছেন ক্যাপ্টেন আবিদ

প্রকাশ : ১৩ মার্চ ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডু ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিধ্বস্ত ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ক্যাপ্টেন আবিদ সুলতান বেঁচে আছেন বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তবে বিমানটির পাইলট প্রিথুলা রশীদসহ তিনজন ক্রু নিহত হয়েছেন বলে কাঠমান্ডু মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল নিশ্চিত করেছে। ইউএস-বাংলার ফার্স্ট অফিসার রিজওয়ান আহমেদ খান জানান, দুর্ঘটনাকবলিত বিমানের ক্যাপ্টেন ছিলেন আবিদ সুলতান। ফার্স্ট অফিসার পৃথুলা ছাড়াও ক্রু হিসেবে ছিলেন নাবিলা ও খাজা হোসেন। গতকাল সোমবার দুপুর ১২টা ৫১ মিনিটে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিমানটি ছেড়ে যায়। নেপালে পৌঁছানোর পর স্থানীয় সময় ২টা ২০ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় ৩টা ৫ মিনিট) এটি বিধ্বস্ত হয়।

নেপালের গণমাধ্যম মাই রিপাবলিকা জানায়, কাঠমান্ডু মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল (কেএমসি) কর্তৃপক্ষ আহতদের মধ্যে আটজনের নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছে। নিহত ক্রুরা হলেন, রকিবুল হাসান এবং খাজা হোসাইন। প্রিথুলার ফেসবুক থেকে জানা যায়, তিনি ২০১৬ সালের জুলাই মাস থেকে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সে চাকরি করছেন। নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাস করা প্রিথুলা উড্ডয়নের ডিগ্রি নিয়েছেন আরিরাং অ্যাভিয়েশন নামের একটি প্রতিষ্ঠান থেকে। কাঠমান্ডু মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে দেওয়া মৃতের তালিকায় ক্রু খাজা হোসেনের নাম রয়েছে। কাঠমান্ডু মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক সুশীলা শর্মা জানান, আহতদের মধ্যে দুজনকে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) ভর্তি করা হয়েছে। বাকিদের হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। নিহতদের মধ্যে তিনজনের পরিচয় জানা গিয়েছে। তারা হলেন, হরি শঙ্কর পোদেল (৩৫), সাজনা দেবকোটা (৩০) এবং প্রবীণ চিত্রকর। নিহত একজন নারী এবং একজন পুরুষের নাম-পরিচয় এখনো জানা যায়নি।

"